ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:৪৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ওবামার সফর, নিরাপত্তার চাদরে দিল্লি

নিরাপত্তার চাদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লি। আকাশপথে ৪০০ কিলোমিটার এলাকাকে আগামীকাল প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ঘোষণা করা হয়েছে নো-ফ্লাই জোন। বাণিজ্যিক বিমানের উড্ডয়ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। চলছে মেট্রো স্টেশনগুলোতে অতিরিক্ত তল্লাশি। দিল্লির বহুতল ভবনে অবস্থান নিচ্ছে সশস্ত্র স্নাইপার। আজ তিন দিনের ভারত সফরে দিল্লি পৌঁছানোর কথা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার।

এ উপলক্ষে নয়া দিল্লির নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। নিশ্চিত করা হয়েছে ৭ স্তরের নিরাপত্তা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রধান হিসেবে এটাই কোন মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রথম ভারত সফর। ভারতের উদ্দেশে গতকাল সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের অ্যান্ড্রুজ বিমান ঘাঁটি থেকে এয়ারফোর্স ওয়ানে যাত্রা শুরু করেন ওবামা। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামাসহ আজ সকালে নয়া দিল্লি পৌঁছানোর কথা মার্কিন প্রেসিডেন্টের। তিন দিনের এ সফরের শেষ দিন ওবামার আগ্রা যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সৌদি আরবের বাদশাহ আবদুল্লাহর মৃত্যুর পর তিনি ভারত সফর আগে ভাগেই শেষ করবেন। ভারত থেকে মঙ্গলবার তার যাওয়ার কথা রয়েছে সৌদি আরবে। মার্কিন সরকারের সূত্র এবং আগ্রা কমিশনার উভয়েই এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নয়া দিল্লির নিরাপত্তা সংস্থাগুলো প্রজাতন্ত্র দিবসে রাজধানীর আকাশপথে নো ফ্লাই জোন ৩০০ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৪০০ কিলোমিটার করেছে। পশ্চিমে জয়পুর এবং দক্ষিণে আগ্রা শহর এবং নিকটবর্তী পাকিস্তান সীমান্ত পর্যন্ত তা বিস্তৃত করা হয়েছে। রাজপথে দুই ঘণ্টাব্যাপী সামরিক কুচকাওয়াজ চলাকালে আকাশপথে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকবে বাণিজ্যিক বিমানগুলোর ওপর। অনুষ্ঠান সমাপ্তি হবে সামরিক বিমানের মহড়া দিয়ে। নিরাপত্তা জোরদার করতে নেয়া ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে, অতিরিক্ত পুলিশি টহল, মেট্রো স্টেশনগুলোতে অতিরিক্ত তল্লাশি, কঠোর ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ।

এছাড়া  মোটরসাইকেলে সঙ্গী বহন করা যাবে না। দিল্লিজুড়ে ৭০টিরও বেশি বহুতল ভবনে থাকছে স্নাইপার। ওবামার এ ভারত সফরে সঙ্গ দিচ্ছেন বড় একটি প্রতিনিধি দল। এর মধ্যে রয়েছেন উচ্চ পর্যায়ের একাধিক কর্মকর্তা। নয়া দিল্লির পাম এয়ারফোর্স স্টেশনে পৌঁছানোর পর আজ স্থানীয় সময় দুপুর ১২টার দিকে রাষ্ট্রপতি ভবনে ওবামাকে স্বাগত জানানোর কথা ভারতের প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জি ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। এর পর মহাত্মা গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে ওবামার যাওয়ার কথা রয়েছে রাজঘাট। সেখানে একটি বৃক্ষরোপণ করবেন তিনি। হোয়াইট হাউস আরও জানিয়েছে, সেখান থেকে প্রেসিডেন্ট ওবামা হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে একান্তে মধ্যাহ্নভোজে যোগ দেবেন। এরপর প্রতিনিধি পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেবেন উভয় নেতা। পরে ৪টা ১০ মিনিটে তারা গণমাধ্যমের সামনে হাজির হবেন। সন্ধ্যা ৭:৩৫ মিনিটে মার্কিন দূতাবাস কর্মকর্তা এবং তাদের পরিবারবর্গ আইসিটি মৌর্য হোটেলে ওবামার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। সেখান থেকে ৮টায় প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জির সঙ্গে রাষ্ট্রীয় নৈশভোজে অংশ নিতে ওবামা যাবেন রাষ্ট্রপতি ভবনে। আগামীকাল ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে সস্ত্রীক ওবামা উপস্থিত থাকবেন রাজপথে। পরে আবারও রাষ্ট্রপতি ভবনে প্রণব মুখার্জির আমন্ত্রণে স্বাগত অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। বিকালে ওবামা ও মোদি অংশ নেবেন সিইও ফোরাম গোলটেবিল বৈঠকে। সেখানে যুক্তরাষ্ট্র-ভারত বিজনেস সামিট নিয়ে বক্তব্য দেবেন উভয় নেতা। পর দিন ২৭শে জানুয়ারি সকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট দিল্লির সিরি ফোর্ট অডিটোরিয়ামে বক্তব্য দেবেন। সেখান থেকে পরে রওনা দেবেন সৌদি আরবের উদ্দেশে।