শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:০১ ঢাকা, শুক্রবার  ১৮ই জানুয়ারি ২০১৯ ইং

ফাইল ফটো

‘৯ মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন’

রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ৯ মামলায় জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বুধবার দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসান মোল্লা নাশকতার আট মামলা এবং রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেন।

এসব মামলায় শুনানির জন্য ১০ অক্টোবর পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে।

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন আবদুল্লাহ আবু। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, এ জে মোহাম্মদ আলী, সানাউল্লাহ মিয়া ও মাসুদ আহমেদ তালুকদার।

এসব মামলায় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আদালতে অভিযোগ আমলে নেয়ার বিষয়ে সময় ও জামিনের আবেদন জানান।

আদালত নাশকতার আট মামলায় এবং রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেন।

তবে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় চার্জ গঠনের জন্য পরবর্তী শুনানির দিন পরে ধার্য করা হবে বলে আদালতের আদেশে বলা হয়।

অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এসব মামলার অভিযোগ আমলে নেয়ার আবেদন জানিয়ে জামিনের বিরোধিতা করেন।

এদিকে ৯ মামলায় জামিন পাওয়ার পর বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলায় ঢাকা মহানগর বিশেষ জজ-৯ আমিরুল ইসলাম মোল্লার আদালতে হাজিরা দিতে যান খালেদা জিয়া।

এই মামলার শুনানির জন্য ৮ সেপ্টেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আদালত। ওইদিন এ মামলা সংক্রান্ত হাইকোর্টের আদেশ দাখিল করতে বলা হয়েছে।

একই সঙ্গে এই মামলার অপর আসামি ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে জামিন দিয়েছেন আদালত।

১০ মামলার শুনানি শেষ হলে খালেদা জিয়া হাজিরা দেন বিশেষ জজ-২ হোসনে আরা বেগমের আদালতে। সেখানে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ (চার্জ) গঠনের শুনানি চলছে।

রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার মামলাগুলোয় আত্মসমর্পণ এবং রাষ্ট্রদ্রোহ ও দুর্নীতির মামলায় হাজিরা দিতে বুধবার সকাল ১০টার দিকে খালেদা জিয়া তার গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা ভবন’ থেকে আদালতের পথে রওনা দেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি আদালতে পৌঁছান।

এসব মামলায় আজ খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরার ধার্য দিন ছিল।