ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:২১ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মন্ত্রিসভার বৈঠক
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক

৭৫ হাজার টাকার মোবাইল সেট ও বিল পাবে মন্ত্রী-সচিবরা

মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী ও সচিবরা সরকারি খরচে ৭৫ হাজার টাকা দামের মোবাইল ফোন সেট কিনতে পারবেন। তারা সরকারি কোষাগার থেকে আনলিমিটেড মোবাইল ফোনের বিলের সুবিধাও পাবেন। এ ছাড়া যুগ্ম সচিবরা মোবাইল ফোন বিল বাবদ এক হাজার ৫০০ টাকা পাবেন।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়া ‘সরকারি টেলিফোন, সেলুলার, ফ্যাক্স ও ইন্টারনেট নীতিমালা-২০১৮’-এ এসব সুবিধার কথা বলা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বৈঠকের বিষয়ে ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, মন্ত্রিসভার বৈঠকে সরকারি টেলিফোন, সেলুলার, ফ্যাক্স ও ইন্টারনেট নীতিমালা-২০১৮ অনুমোদন দেয়া হয়। এটি প্রস্তাব আকারে পেশ করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

সচিব বলেন, এ ধরনের একটি নীতিমালা আগেও ছিল, ২০০৪ সালে তা সমন্বিতভাবে করা হয়। ২০১৭ সালে নতুন একটি খসড়া তৈরি হয়, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সেটিই এখন চূড়ান্ত করা হল।

তিনি বলেন, আগের নীতিমালায় মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী ও সচিবদের মোবাইল কেনার জন্য ১৫ হাজার টাকা বরাদ্দ ছিল। এবার তা বাড়িয়ে ৭৫ হাজার টাকা করা হয়েছে। বর্তমান বাজারদরের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই এটি বাড়ানো হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতিদের টেলিফোন ব্যবহার এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রাচার প্রধানের জন্য আন্তর্জাতিক রোমিং সুবিধা যুক্ত করে তাকেও এ নীতিমালায় যুক্ত করতে অনুশাসন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

এছাড়াও মন্ত্রিসভা হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এইচবিআরআই) আইন-এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।

এই নতুন আইন ১৯৭৭ সালে সামরিক শাসনামলে জারিকৃত অধ্যাদেশের প্রতিস্থাপন হবে বলে বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব সাংবাদিকদের ব্রিফকালে জানান।

গৃহায়নের সঙ্গে সম্পর্কিত নকশা, ভবন নির্মাণ ও নির্মাণ সামগ্রী এবং অন্যান্য সমস্যা নিয়ে বৈজ্ঞানিক ও কারিগরি গবেষণা পরিচালনার লক্ষ্যে এইচবিআরআই প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রস্তাবিত আইনে ২০ সদস্যের একটি পরিচালনা পরিষদ গঠনের বিধান রয়েছে। এই পরিষদের প্রধান হবেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী/উপমন্ত্রী ও সচিব ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে থাকবেন। এ ছাড়া একটি নির্বাহী কমিটি থাকবে। এতে প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক সভাপতি ও ৪ জন কর্মকর্তা সদস্য হিসেবে থাকবেন।