Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১২:২৩ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ড. হাছান মাহমুদ
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, ফাইল ফটো

‘৭৫ এর খুনি আর ধর্মের নামে মানুষ হত্যাকারীরা একই চেতনা ও ঘরানার’

১৯৭১,৭৫ এর খুনিরা আর বর্তমানে যারা ইসলামের নাম দিয়ে মানুষ হত্যা করছে তারা একই চেতনা ও একই ঘরানার এবং তাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এক ও অভিন্ন বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড.হাছান মাহমুদ এমপি।

সোমবার সকালে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড.হাছান মাহমুদ এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন ৭১ সালে ধর্মের কথা বলে মানুষকে হত্যা করা হয়েছিল,১৯৭৫ সালেও বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সময় ধর্মের দোহাই তোলা হয়েছিল আর এখনও ধর্মের নামেই গুপ্তহত্যা,জঙ্গি হামলার মাধ্যমে মানুষ হত্যা করা হচ্ছে।

জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে হাছান মাহমুদ বলেন,১৯৭৫ এ শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করা হয়নি; হত্যা করা হয়েছিল একটি জাতির সম্ভাবনা ও অগ্রগতিকেও।গত অর্থবছরে আমাদের জাতীয় প্রবৃদ্ধি সাত(৭) শতাংশ ছাড়িয়েছে কিন্ত এর আগে কেবলমাত্র একবারই বঙ্গবন্ধুর শাসনামলেই ১৯৭৪-৭৫ সালে প্রবৃদ্ধি সাত শতাংশ ছাড়িয়েছিল।বঙ্গবন্ধু যখন অসামান্য কর্মদক্ষতা ও নেতৃত্বের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন তখনই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল।এখন যখন আবার বঙ্গবন্ধু তনয়ার শক্ত নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, প্রবৃদ্ধি সাত শতাংশ ছাড়িয়েছে।
তখনই দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করার উদ্দেশ্যে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের অংশ হিসেবে গুপ্তহত্যা,জঙ্গি হামলা, সংখ্যালঘু হত্যা শুরু হয়েছে।

জঙ্গি ও সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে আইনাশৃঙ্খলা বাহিনীর সাফল্যের প্রশংসা করে হাছান মাহমুদ বলেন,অনেক জঙ্গি ইতিমধ্যে ধরা পড়েছে,অনেকেই নির্মূল হয়েছে।ইতিমধ্যে জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মদদদাতাদেরও গোয়েন্দাবাহিনী চিহ্নিত করেছে।আইনাশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, জঙ্গি সমস্যাকে সমূলে উৎপাটন করতে হলে যারা জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী,যারা অর্থায়ন করছে,যারা দেশের নানা জায়গায় বক্তব্যের মাধ্যমে জঙ্গিবাদকে উসকে দিচ্ছে,যারা জঙ্গিবাদকে রাজনৈতিক আশ্রয় দিচ্ছে,রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে জঙ্গিবাদকে ব্যবহার করছে তাদেরকেও চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।ইতিমধ্যেই অনেকেই চিহ্নিত হয়েছে আশা করি অচিরেই তাদের গ্রেফতার করা হবে।

ড.হাছান মাহমুদ তার বক্তব্যে আরো বলেন, আগস্ট মাস এলেই দেশে বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করা হয়।১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট,২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট এবং ২০০৪ সালের ২১ শে আগস্টের হামলাকারী ও মূলহোতারা একই চেতয়ার।তারা সবসময়ই দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।এবারও তারা বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করতে পারে।তাই আমি দেশবাসীকে সতর্ক থাকার পাশাপাশি এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানাচ্ছি।