Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:০৭ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘৬ হাজার ৯৫০ কোটি টাকার ৬ প্রকল্প অনুমোদন’

ঢাকার পানি সরবরাহ নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্পসহ ৬টি প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এসব প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৬ হাজার ৯৫০ কোটি ২৩ লাখ টাকা।

আজ রাজধানীর শেরে বাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক বৈঠকে এসব প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়।

এই ছয় প্রকল্পের মধ্যে চারটি নতুন ও দুটি সংশোধিত। মোট প্রাক্কলিত ব্যয়ের মধ্যে সরকারী অর্থায়ন ৪ হাজার ১৪৬ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ও প্রকল্প সাহায্য ২ হাজার ৬৬১ কোটি ৭০ লাখ টাকা। সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় হবে ১৪১ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।

বৈঠকশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, ঢাকা পানি সরবরাহ নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ঢাকা শহরে আরো ৮২টি ডিস্ট্রিক মিটারিং এরিয়া প্রতিষ্ঠা এবং ঢাকা ওয়াসার সক্ষমতা বৃদ্ধি করে নগরবাসীকে নির্ভরযোগ্য সার্বক্ষণিক সুপেয় পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে।এর মাধ্যমে ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, প্রকল্পের আওতায় স্বল্প আয়ের জনগোষ্ঠী এবং বস্তিবাসীসহ সকল নগরবাসীকে বৈধ সংযোগের আওতায় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা সম্ভব। এতে ঢাকা মহানগরীর জনসাধারণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করাসহ আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে।

এই প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ১৮২ কোটি ৩০ লাখ টাকা।এর মধ্যে প্রকল্প সহায়তা হিসেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) কাছ থেকে পাওয়া যাবে ২ হাজার ১৪৫ কোটি টাকা। বাকী অর্থ সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় করা হবে।

মন্ত্রী জানান, এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (এআইআইবি) প্রথমবারের মতো বাংলাদেশকে ঋণ দিচ্ছে। এই অর্থ দিয়ে আজ একনেকে অনুমোদন পাওয়া ডেসকোর প্রকল্প দু’টি বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি এআইআইবি থেকে ঋণ পাওয়াকে ঐতিহাসিক বিষয় বলে উল্লেখ করেন।

ঢাকার পানি সরবরাহ নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্প ছাড়া একনেকে অনুমোদন পাওয়া অন্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে-বাংলাদেশের ৬৪টি জেলা সদরে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ প্রকল্প, এটি বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৩৮৮ কোটি ২৭ লাখ টাকা। ‘ডেসকো এলাকায় বিদ্যমান ৩৩ কেভি ওভারহেড লাইনকে আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলে রুপান্তর, ক্ষমতা বর্ধন এবং স্থাপন’ প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৬৮ কোটি ৮০ লাখ টাকা। ডেসকোর উত্তরা ও বসুন্ধরা ১৩২/৩৩/ ১১ কেভি গ্রীড উপকেন্দ্রের ক্ষমতা বর্ধন ও পুনর্বাসন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫১ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। ন্যাশনাল একাডেমি ফর অটিজম অ্যান্ড নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজএ্যাবিলিটিজ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৫০ কোটি ৬ লাখ টাকা। বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের ভৌত সুবিধাদি ও গবেষণা কার্যক্রম বৃদ্ধিকরণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ২০৯ কোটি ৪৪ লাখ টাকা।

একনেক বৈঠকে সরকারের জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী, উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা ও পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দ যোগ দেন।