Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:৫৪ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

৪ লাখ নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানে একনেকের দু’টি প্রকল্প অনুমোদন

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ৪ লাখ গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের লক্ষ্যে দু’টি পল্লী বিদ্যুতায়ন প্রকল্প সম্প্রসারণের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে।
বরিশাল ও খুলনা বিভাগের ১১টি জেলা এই বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের আওতায় আসবে। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা। জেলাগুলো হচ্ছে- ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বাগেরহাট, যশোর, ঝিনাইদহ, খুলনা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, মেহেরপুর ও সাতক্ষীরা।
আজ রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়।
সভা শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন, একনেক ৭ হাজার ৯শ’ কোটি টাকা ব্যয় সম্বলিত মোট ৯টি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করেছে।
পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, এই ব্যয়ের মধ্যে ৫ হাজার ৪৩৬ কোটি টাকা জাতীয় কোষাগার থেকে সরকার প্রদান করবে। ২ হাজার ২৭৮ কোটি টাকা প্রকল্প সহায়তা হিসেবে পাওয়া যাবে। ১৮৫ কোটি টাকা সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় করবে।
মোস্তফা কামাল বলেন, বরিশাল বিভাগ পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারণ কর্মসূচি ৮৩৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়িত হবে। খুলনা বিভাগ পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারণ কর্মসূচি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৯৯৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা। ২০১৮ সালের মধ্যে বিদ্যুৎ বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড প্রকল্প দু’টি বাস্তবায়ন করবে।
এই প্রকল্পের আওতায় ১০ হাজার ৭শ’ কিলোমিটার নতুন বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করা হবে। পাশাপাশি ১১টি জেলার ১ হাজার ৩শ’ কিলোমিটার পুরনো বিদ্যুৎ লাইন সংস্কার করা হবে। প্রকল্প দু’টি আওতায় ২৫টি নতুন সাব-স্টেশন স্থাপন করা হবে।
একনেক সভায় বাংলাদেশের বিমান বন্দরগুলো নিরাপত্তা উন্নয়নেও একটি প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। এতে ব্যয় হবে ২৯৩ কোটি টাকা। ২০১৭ সালের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া একনেক বোয়িং-৭৭৭, ৭৪৭ এবং এয়ারবাস-৩৩০ এর মতো বিমান যাতে সুষ্ঠুভাবে ওঠানামা করতে পারে সেজন্য হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের উন্নয়নে আরেকটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৬২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।
সভায় মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য এবং সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।