Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৪:৫৬ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২২শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

৩৩টি কাউন্সিলর পদে ক্ষমতাসীন দলের বাইরে মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেয়া হয়নি

ফেনী, দাগনভুঁইয়া ও পশুররাম পৌরসভার ৩৩টি কাউন্সিলর পদে ক্ষমতাসীন দলের বাইরে অন্য কাউকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মূখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন।
শুক্রবার বিকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।
রিপন বলেন, যেসব জায়গায় প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধার সম্মুখীন হয়েছেন, প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে এবং মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেয়া হয়নি, সেখানে নতুন করে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার তারিখ নির্ধারণের জন্য আমরা নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।
তিনি বলেন, শুক্রবার পত্র-পত্রিকায়ও প্রকাশিত হয়েছে, কিভাবে বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী আচরণ বিধি লংঘনের মহোৎসব হচ্ছে। বরগুনার বেতাগী, ভোলার দৌলতখান, যশোরের কেশবপুর, ময়মনসিংহের গৌরিপুর, ঢাকার ধামরাই, সাভার, ফেনী সদর, দাগনভুঁইয়া ও পুরশুরাম প্রভৃতি জায়গায় আচরণবিধি লংঘন করে ক্ষমতাসীন দলের এমপিদের নেতৃত্বে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিতে গেছেন।
তিনি বলেন, যেসব রিটার্নিং অফিসার সরকারের ইশারায় চলছেন, যারা আচরণবিধি লংঘনকারীদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেননি তাদেরকে অবিলম্বে নির্বাচনের দায়-দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করতে হবে। কারণ তাদেরকে স্ব-স্ব জায়গায় রাখলে নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে না।
এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন কী ব্যবস্থা নেয়, বিএনপি তার প্রতীক্ষায় আছে বলেও মন্তব্য করেন দলটির মুখপাত্র।

গণগ্রেফতারে বন্ধের দাবি
পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে গণগ্রেফতার চলছে অভিযোগ করে রিপন বলেন, বৃহস্পতিবারও জামালপুর জেলার সাতটি উপজেলা থেকে  যৌথবাহিনী ৮৫ জনকে  গ্রেফতার করেছে। এতে এলাকায় গ্রেফতার আতঙ্ক বিরাজ করছে।
তিনি বলেন, নীলফামারীতে ৪৭ জন, সাতক্ষীরায় ৩৫ জন এবং চট্টগ্রামে ৬৩জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা আবারো এই গণগ্রেফতার বন্ধের দাবি জানাচ্ছি।