Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৪২ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

২০০৯ থেকে প্রবাসীরা ৭৬ হাজার ৬০৪.৩৮ মিলিয়ন ডলার পাঠিয়েছে

বাংলাদেশের মোট ২৮ লাখ ৭১ হাজার ৭০৫ জন কর্মি ২০০৯ থেকে ২০১৪ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত চাকুরি নিয়ে বিদেশে গেছেন এবং এ সময়ে তারা ৭৬ হাজার ৬০৪ দশমিক ৩৮ মিলিয়ন বৈদেশিক মুদ্রা দেশে পাঠিয়েছেন।
এ প্রসঙ্গে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিশ্ব অর্থনীতি মন্দা কাটিয়ে ওঠায় সরকার প্রতিবছর বিদেশে ছয়- সাত লাখ লোকের কর্মসংস্থানের আশা করছে।
তিনি বলেন, সফল শ্রম কূটনীতির কারনে বর্তমান সরকার ১৬০টি দেশে জনশক্তি রপ্তানি করতে সক্ষম হয়েছে।
ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিশ্বব্যাপি জনশক্তি রপ্তানির বাজার খোঁজার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এবং দক্ষ ও আধা-দক্ষ কর্মি গড়ে তুলতে জেলা সদরগুলোতে কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।
তিনি জানান, সরকার ইতিমধ্যে সারা দেশে ৪৭ টি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও চারটি মেরিন টেকনোলজি ইনস্টিটিউট স্থাপন করেছে এবং উপজেলা পর্যায়ে চারশ’টি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের লক্ষ্যে একটি প্রকল্প গ্রহন করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আমরা অভিবাসন ব্যয় কমিয়েছি ও বিদেশে দক্ষ জনশক্তি রপ্তানির লক্ষ্যে শ্রমিকদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছি এবং বৈদেশিক মুদ্রার প্রবাহ ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেয়েছে।
উল্লেখ্য, সফল শ্রম কূটনীতির কারনে বর্তমান সরকার ১৫৯টি দেশে জনশক্তি রপ্তানি করতে সক্ষম হয়েছে। অথচ বিগত চারদলীয় জোট সরকার শুধু ৫৯টি দেশে শ্রমিক পাঠাতে সক্ষম হয়েছিল।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের সফল কূটনৈতিক প্রচেষ্টার কারণে মালয়েশিয়া দুইলাখ ৬৭ হাজার ৮০৩ জন অবৈধ বাংলাদেশীকে বৈধতা দিয়েছে।
জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) সূত্রে জানা গেছে, বিগত ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত থেকে ৬৭ হাজার ৫৮৩ জন নারী কর্মিসহ মোট চার লাখ ২০ হাজার ৬১২ জন শ্রমিক বিএমইটি থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বিদেশে গেছে।