কৃশানুর

১২০০ নারীর অশালীন ছবি যুবকের পেনড্রাইভে

কলকাতার পর্ণশ্রীর অক্ষয় পাল রোডে কৃশানু বিশ্বাস (৩০) নামে এক তরুণের পেনড্রাইভে পাওয়া গেছে ১২০০ নারীর অশালীন ছবি। কখনও কারও বাথরুমের ছবি। কখনও বা নিছক রাস্তায় হেঁটে যাওয়া নারীর অশালীন ছবি পাওয়া যায় তার পেনড্রাইভে।

সম্প্রতি কৃশানুর অফিসেরই এক সহকর্মী একটি পেনড্রাইভ খুঁজে পান। সেটা কার জানতে পেনড্রাইভটি কম্পিউটারে লাগাতেই তার সব পোল খুলে যায়।

১২শর বেশি এ রকম ছবির হদিস মিলেছে কৃশানুর পেনড্রাইভে। কৃশানু বিশ্বাস কলকাতার একটি কেন্দ্রীয় সরকারি দফতরে কাজ করেন।

দীর্ঘ অনেক বছর ধরে এই কাজ করলেও কেউ কোনো দিন বুঝতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত পেনড্রাইভ হারিয়ে ধরা পড়ে গেল গুণধর এই কৃশানু।

জানা যায়, কয়েক দিন আগে তার অফিসেরই এক সহকর্মী একটি পেনড্রাইভ খুঁজে পান। সেটা কার জানতে, সেই পেনড্রাইভ কম্পিউটারে লাগাতেই একটি ফোল্ডারের হদিস পাওয়া যায়। সেই ফোল্ডার খুলতেই বেরিয়ে আসে একের পর এক নারীর অশালীন ছবি।

প্রথমে তার সহকর্মীরা বিষয়টি বুঝতে না পারলেও তার অন্য এক সহকর্মী এই রহস্যের পর্দা ফাঁস করেন। তিনি ওই ছবির মধ্যে কয়েকজন পরিচিত মুখও শনাক্ত করেন যাঁরা কৃশানুর প্রতিবেশী। এভাবে সহকর্মীর মাধ্যমেই খবর এবং সেই পেনড্রাইভ পৌঁছায় কৃশানুর প্রতিবেশী প্রীতম শূরের কাছে।

প্রতিবেশী প্রীতম শূর বলেন, পেনড্রাইভ খুলে আমরা রীতিমতো হতবাক। এই পাড়া, পাশের পাড়ার হেন কোনো তরুণী নেই যার ছবি নেই এই পেনড্রাইভে। কেউ বাড়ির পোশাকে, কেউ বাথরুমে- সেই অবস্থায় এই ছবি তোলা হয়েছে। লুকিয়ে নিজের আত্মীয়দেরও প্রায় নগ্ন ছবি তুলেছে কৃশানু। -খবর আনন্দবাজার।