Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:০৯ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

সংযুক্ত হছে ১০৭০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

দেশের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে চলতি বছর সরকারি খাতের বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ১০৭০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সংযুক্ত হবে।
আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেডের (এপিএসসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এম নুরুল আলমের  সঙ্গে আলাপকালে বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে কাজ করছে।
তিনি বলেন, এপিএসসিএল ২০১৫ সালের মার্চ নাগাদ ৩৪০ মেগাওয়াট, জুলাই নাগাদ ৪৮০ মেগাওয়াট, ডিসেম্বর নাগাদ ২৫০ মেগাওয়াট এবং ১৩০ মেগাওয়াট ২০১৬ সালের অক্টোবর নাগাদ উৎপাদন ও জাতীয় গ্রীডে সংযুক্ত হবে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালের ২০ জুলাই আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেডের ৪টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ কেন্দ্রগুলোর উৎপাদন সক্ষমতা ১২০০ মেগাওয়াট।
ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, এ উদ্যোগ ২০২১ সাল নাগাদ ২৪০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সহায়ক হবে।
তিনি বলেন, সরকার ২০২০ সাল নাগাদ আরো ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট (ইস্ট) প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এপিএসসিএল’র নতুন প্রকল্প ২২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হবে।
ইঞ্জিনিয়ার নুরুল আলম বলেন, আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড দু’টি পৃথক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প গ্রহণ করেছে। বরগুনায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ১৩২০ মেগাওয়াট ও দিনাজপুরে সুপার থারমাল পাওয়ার প্লান্টে ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে।
বিদ্যুৎ উৎপাদনে ভিশন ২০৩০ লক্ষ্য অর্জনে এসব প্রকল্প নেয়া হয়েছে।
ইঞ্জিনিয়ার নুরুল আলম বলেন, ২০৩০ সাল নাগাদ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে এপিএসসিএল এ সময়ে ৭০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।
মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বর্তমানে এখানে মোট ৭টি ইউনিটে ৬৭১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে।