Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৩৫ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘৭ কোটি আঙুলের ছাপ ও পাসপোর্টের তথ্য চুরি’

হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে নির্বাচনের মাত্র এক মাস আগে ঘটে গেল ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সরকারি তথ্য চুরির ঘটনা ফিলিপাইনে। প্রায় সাত কোটি মানুষের আঙুলের ছাপ ও পাসপোর্ট থেকে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করা হয়। অবশ্য ফিলিপিনো কোন কোন গণমাধ্যম ৫৫ মিলিয়ন তথ্য চুরির কথা বলছে।

গত মার্চে এ হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটে। আগামী ৯ মে ফিলিপাইনের সাধারণ নির্বাচন হওয়ার কথা।

অজ্ঞাত এক হ্যাকার দল এ ঘটনার সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে।

তাদের দাবি- হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে ৯ মের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ ব্যবস্থার দুর্বলতাগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে।

ফিলিপিনো গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, দ্য ফিলিপাইনস কমিশন অন দ্য ইলেকশনসের (কমেলেক) ওয়েবসাইটটি মার্চ মাসের শেষ দিকে হ্যাক করা হয়।

এ ঘটনার কিছুদিন পর ‘লুলজসেক ফিলিপাইনস’ নামের অপর এক হ্যাকার দল কমেলেকের পুরো ডাটাবেজ অনলাইনে প্রকাশ করে দিয়েছিল বলে ধারণা করা হয়।

সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ‘ট্রেন্ড মাইক্রো’র মতে- এটি ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সরকারি তথ্য চুরির ঘটনা। এর আগে ২০১৫ সালের যুক্তরাষ্ট্রের ‘ইউএস অফিস অব পারসোনেল ম্যানেজমেন্টের’ ভাণ্ডার থেকে দুই কোটি নাগরিকের আঙুলের ছাপ এবং সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর হ্যাক করা হয়েছিল।