Press "Enter" to skip to content

হিসাব-নিকাশে স্বচ্ছতার তাগিদ রাষ্ট্রপতির

রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ সরকারি এবং বেসরকারি খাতে হিসেবের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার অধিকাংশ দেশে বিপুল সম্ভাবনাময় জনশক্তি রয়েছে। সুতরাং এই অঞ্চলে টেকসই উন্নয়নে আপনাদের মতো পেশাজীবীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

রাষ্ট্রপতি আজ বিকেলে নগরীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ চার্টার্ড একাউন্টস ইনিস্টিটিউট আয়োজিত সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব একাউন্ট্যান্টস (সাফা) আন্তর্জাতিক সম্মেলন-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি দেশের সাবির্ক অগ্রগতিতে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের ভূমিকার উল্লেখ করে বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ক্ষেত্রে আপনাদের ভূমিকা হওয়া উচিৎ শুধু ব্যক্তি অথবা প্রতিষ্ঠানের জন্য নয়, দেশের সমষ্টিগত স্বার্থ ও মঙ্গলের জন্য।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির আয়তন আজ বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সাথে দেশের ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটেছে। ফলে সরকারি ও বেসরকারি খাতে হিসাবের স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদেরকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। সম্মেলনের ‘সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীষর্ক প্রতিপাদ্যের উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, অর্থনীতির এই ক্রমবর্ধমানকে টেকসই ও বেগবান করতে এই প্রতিপাদ্য খুবই সময়োপযোগী।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশে এখন বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই সুযোগ কাজে লাগাতে এবং বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা বিদেশী বিনিয়োগকারীদের নিকট তুলে ধরতে এই সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। সম্মেলনে যোগদানকারী বিদেশী প্রতিনিধিদের স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি দক্ষিণ এশিয়ার সমস্যাগুলো সমাধানে সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালাতে তাদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বলেন, সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন নিরাপদ ও উপযুক্ত স্থান। আমাদের সরকার বিদেশী বিনিয়োগকারীদের জন্য এখন নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। রাষ্ট্রপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে এই সুযোগ লুফে নিয়ে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে এগিয়ে আসার জন্য বিদেশী বিনিয়োগকারীদের প্রতি আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি, আইসিএএম সভাপতি এএফ এফসিএম নেসারউদ্দিন, এফসিএ, সাফা প্রেসিডেন্ট ড. জগন মোহন রাও, মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপনকারী এবং সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগের (সিপিডি) ফেলো অধ্যাপক মুস্তাফিজুর রহমান, সাফা সাংগঠনিক কমিটির চেয়ারম্যান মুহম্মদ ফরহাদ হোসেন, এফসিএ, বঙ্গভবনের সংশ্লিষ্ট সচিবগন এবং সার্ক দেশসমূহের ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিগন অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার অপশন: