ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৫৪ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

হিন্দু এক ছাত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ : পাবনায় ৪০০ পরিবারে আতঙ্ক

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের এক হিন্দু ছাত্রীকে…… (২১) বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করেছে সন্ত্রাসীরা। এলাকার প্রায় ৪০০ হিন্দু পরিবারে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় সাঁথিয়ার করমজা ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর কাকা জানান, করমজা ইউনিয়নের একটি বাড়িতে পাঁচ দিনব্যাপী কীর্তন উৎসব চলছিল। রোববার ওই ছাত্রীর বাড়ির সবাই কীর্তন দেখতে যায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হিন্দু ওই ছাত্রী বাড়িতেই ছিলেন। এ সময় ওত পেতে থাকা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ফরিদ, হাফিজুল, আদেল ও ফজলু বাড়িতে ঢুকে। তারা ছাত্রীকে অস্ত্র দেখিয়ে মুখ বেঁধে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়।

এরপর দুর্বৃত্তরা বাড়ির পাশে একটি খালের মধ্যে নিয়ে গিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে মেয়েটি অচেতন হয়ে পড়লে ধর্ষকরা তাঁকে ফেলে চলে যায়। রাত ১০টার দিকে কীর্তন শেষে লোকজন ফেরার পথে মেয়েটির গোঙানির শব্দ শুনে তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাঁকে পাবনা মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে সাঁথিয়া থানায় ফরিদ, হাফিজুল, আদেল ও ফজলুকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় হিন্দু পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তবে ধর্ষণের ঘটনায় আসামিদের গ্রেপ্তারে সাঁড়াশি অভিযান চালাছে বলে জানাগেছে।

এদিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় এলাকার প্রায় ৪০০ হিন্দু পরিবারে আতঙ্ক বিরাজ করছে। অভিযুক্ত ফরিদ এর আগেও ওই পাড়ায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।