Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৫০ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

সাপ্তাহিক আজকাল
আমেরিকা থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক আজকাল

হিন্দুরাই বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে অথচ পরাধীন, আমেরিকায় ক্ষোভ

আমেরিকান বাঙ্গালী হিন্দু কাউন্সিলের সভায় বক্তারা বলেছেন,  পূর্ব পাকিস্তানের সংখ্যাগরি মুসলমান স্বাধীনতা চাননি। হিন্দুরাই বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে অথচ এদের স্বাধীন করা দেশে এখন এরাই পরাধীন। তারা বলেন, হিন্দুরা তাদের ভিটেমাটি ছেড়ে পালিয়ে যাবে না। আমরা প্রয়োজনে আবার দেশকে স্বাধীন করবো। খবর আজকালের প্রিন্ট ও অনলাইনের।

গত ১৮ ডিসেম্বর আমেরিকান বাঙ্গালী হিন্দু কাউন্সিল এর উদ্যোগে জ্যাকসন হাইটসে অবস্থিত ওঁম শক্তি মন্দিরে বাংলাদেশের ৪৫তম বিজয় দিবস উদযাপন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তারা একথা বলেন ।

সংগঠনের আহ্বায়ক ও সমাজকর্মী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গৌরাঙ্গ কুন্ডুর সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব প্রনবেন্দু চক্রবর্তী দ্রুব এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটিতে বিজয় দিবসের ইতিহাস এবং বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতির উপর বক্তব্য উপস্থাপিত হয়। অনুষ্ঠানটি বিজয় দিবসের উপলক্ষ্যে হলেও বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর সাম্প্রতিক  সহিংসতা এবং স্বাধীনতার পর থেকে অব্যাহত ভাবে হিন্দুদের উপর নির্যাতনের প্রসঙ্গ তুলে বক্তারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক নেতা এবং আমেরিকান বাঙ্গালী হিন্দু ফাউন্ডেশন এর প্রেসিডেন্ট শ্যামল চক্রবর্তী বলেন, পূর্ব পাকিস্তানের সংখ্যাগরি মুসলমান স্বাধীনতা চাননি। হিন্দুরাই বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে অথচ এদের স্বাধীন করা দেশে এখন এরাই পরাধীন। স্বাধীনতার সুফল ভোগ করছে দেশের বিরুদ্ধ শক্তি।

এটর্নি শেখ সেলিম বলেন, হিন্দুদেরকে অবশ্যই তাদের অধিকারের কথা জোর গলায় বলতে হবে, এই ভুমির উপর তাদের দাবী কারও চেয়ে কম নয়। বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায় সভায় উপস্থিত হলে দর্শকরা তাকে মুহুর্মুহু করতালিতে অভিবাদন জানায় ও অভিনন্দিত করে। এই বীর মুক্তিযোদ্ধা তার বক্তব্যে যুদ্ধকালীন নানা স্মৃতির কথা বলেন এবং বাংলাদেশে স্বাধীনতার আদর্শকে উজ্জীবিত রাখতে সঠিক নেতৃত্ব গঠন ও নেতৃত্বের প্রতি আস্থার তাগিদ দেন।

তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রাণিত করার জন্য ও তাদের মনোবল অটুট রাখার জন্য বক্তব্যের মাঝখানে খালি গলায় “তীর হারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দিব রে” গানটা গেয়ে সকলকে আপ্লুত করেন। মূলধারার রাজনীতিক ডঃ দিলীপ নাথ কমিউনিটির বিভক্তি প্রসঙ্গ টেনে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এখানে কিছু মানুষ নিজেকে জাহির করতে যা খুশী করে যাচ্ছে। কিন্তু আমাদের ভাবতে হবে আমাদের কর্মকান্ড দেশে আমাদের স্বজনদের জন্য বিপদ ডেকে আনে কিনা।

দাউদকান্দি পৌরসভার সাবেক কমিশনার তাপস কৃষ্ণ সরকার বলেন, মৌলবাদীদের দ্বারা আক্রান্ত হয়ে আমি দেশ ছেড়েছি। আমি একজন ভুক্তভুগী। কিন্তু এই জন্য তো আমরা বাংলাদেশ স্বাধীন করিনি।

যুক্তরাষ্ট্র হিন্দু মহাজোটের নেতা গৌতম সরকার বলেন আমাদের সকলকে খাঁটি হিন্দু হতে হবে। হিন্দুরাই বাংলাদেশের আদর্শ, হিন্দুরা উগ্রবাদী হতে পারে না।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার প্রেসিডেন্ট ডঃ টমাস দুলু রায় বলেন মৌলবাদীদের আস্ফালনে আমাদের স্বাধীনতা বিপন্ন। প্রনবেন্দু চক্রবর্তী বলেন, হিন্দুরা তাদের ভিটেমাটি ছেড়ে পালিয়ে যাবে না। আমরা প্রয়োজনে আবার দেশকে স্বাধীন করবো।

মানবাধিকার নেতা ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক প্রদীপ দাস বলেন, আজ বাংলাদেশে স্বাধীনতা বঞ্চিত হিন্দুদের দুর্দশার জন্য শুধুমাত্র মৌলবাদী ও রাজনৈতিক নেতাদের দোষারোপ করলে চলবে না। সমাজের যোগেন্দ্র মন্ডলদের চিহ্নিত করতে হবে। যারা ক্রমাগত সমাজে ভাঙ্গন সৃষ্টি করে তারা হিন্দুদের নেতৃত্বের দাবী করে কি করে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহামায়া মন্দিরের চেয়ারম্যান ডঃ অশোক সাহা, সুভাষ মজুমদার, অমর চন্দ্র দাস, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও বাংলাদেশ হিন্দু মন্দিরের কর্মকর্তা সাধন দাস প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে গৌরাঙ্গ কুন্ডু সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাংলাদেশে হিন্দুদের স্বাধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত দেশে ও প্রবাসে আন্দোলন অব্যাহত রাখার আহবান জানান।

ajkal2-copy-2

অংশ বিশেষ

ajkal-online-copy

অনলাইনের অংশ বিশেষ

 

সংবাদটির লিঙ্ক নিম্নে দেয়া হলঃ

http://www.ajkalnewyork.com/newsite/2016/12/23/61668.html#.WF_wpLla_IW