Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৫০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

‘হাসনাত ও তাহমিদ জড়িত কি না সেটি জিজ্ঞাসাবাদের পর্যায়ে আছে’

গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সাবেক শিক্ষক আবুল হাসনাত রেজাউল করিম ও কানাডা প্রবাসী টরেন্টো ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী তাহমিদ হাসিব খান জড়িত কি না সেটি এখনো জিজ্ঞাসাবাদের পর্যায়ে আছে। ঘটনার সময় তাদের চলাফেরা, তারা কি কারণে জঙ্গিদের সঙ্গে ঐভাবে কথা বলেছিলেন এবং তাদের অস্ত্র নেয়ার কারণ কি তা-ও রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হলে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

রবিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল সাইবার ক্রাইম ই্উনিটের প্রধান ও অ্যাডিশনাল কমিশনার মনিরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, গুলশানের হামলার ঘটনার তদন্তে যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরো কয়েক ব্যক্তিকে আটক করা সম্ভব হলে পুরো রহস্য জানা যাবে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, আপাতত হাসনাত রেজা করিম  ও তাহমিদ হাসিব খানকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আটদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাবাসাদে হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হলেই গুলশান হামলার মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হবে।

উল্লেখ্য, গত ১ জুলাই হলি আর্টিজান রেঁস্তোরায় হামলার সময় বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজে হাসনাত ও তাহমিদের চলাফেরার রহস্যজনক গতিবিধি ধরা পড়ে। এই ঘটনার পর থেকে তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাত করা হয়। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের ছেড়ে দেয়ার কথা জানানো হয়। গত বৃহস্পতিবার হাসনাত ও তাহমিদকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখানো হয়। ঐদিনই তাদের রিমান্ড আবেদন করা হলে আদালত আটদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।