জার্মানির মসজিদ
হামলার হুমকিতে জার্মানিতে ৩ মসজিদ বন্ধ, ছবিঃ সাবাহ/এপি

হামলার হুমকিতে জার্মানিতে ৩ মসজিদ বন্ধ

জার্মানিতে কমপক্ষে তিনটি মসজিদ খালি করে দিয়েছে পুলিশ। নিরাপত্তার খাতিরেই এসব মসজিদ আপাতত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ই-মেইলের মাধ্যমে জার্মানির বেশ কিছু মসজিদে বোমা হামলার হুমকি দেয়া হয়। এরপরই দেশটির বিভিন্ন মসজিদে প্রশিক্ষিত কুকুর দিয়ে তল্লাশি চালায় পুলিশ।

এদেরমধ্যে ওই তিনটি মসজিদে যেতে স্থানীয় মুসল্লিদের নিষেধ করে দেয় দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। খবর আনাদোলুর।

সংবাদ সংস্থাটি জানায়, দক্ষিণ জার্মানির বেভারিয়াতে দুটি মসজিদ, পেসিং এবং ফ্রেইমানের দুটি মসজিদে এবং রাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের উত্তরাঞ্চলের ইসারলোন শহরের একটি মসজিদে ই-মেইলে হুমকি পাঠায় একটি ডানপন্থি সংগঠন।

এছাড়া বৃহস্পতিবার জার্মানির কলোনি সিটিতে অবস্থিত সবচেয়ে বড় মসজিদেও একই ধরনের ই-মেইল পাঠিয়েছে সংগঠনটি।

এসব ই-মেইলে নামাজরত মুসলিমদের ওপর হামলা চালানোর হুমকি দেয়া হয়েছে। ডানপন্থি ওই সংগঠনটি সেখানে লিখেছে, জার্মানের জেলে অন্তরীন তাদের সংগঠনের সদস্যদের না ছেড়ে দিলে এসব মসজিদে বোমা হামলা চালানো হবে।

ইসারলোন শহরের মসজিদে নামাজের জায়গায় বোমা রাখা আছে বলে ই-মেইলে হুমকি দিয়েছে তারা।

এমন খবরে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দ্রুত এসব মসজিদে তল্লাশি চালায়। তবে তল্লাশিতে কোনো মসজিদেও সন্দেহজনক কিছুই পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়দের বক্তব্য, বোমা হামলা চালানোর এমন হুমকি নিছক ধাপ্পাবাজি ও ভুয়া। তবুও নিরাপত্তার খাতিরে তিনটি মসজিদ খালি করে দেয় পুলিশ।

কেননা সাম্প্রতিক সময়ে জার্মানিতে ডানপন্থি কিছু সাম্প্রদায়িক সংগঠন মুসলিমবিরোধী অপপ্রচারে নেমেছে। এতে সেখানে মুসলিমদের প্রতি হিংসাত্মক মনোভাব বেড়ে গেছে। ফলাফস্বরুপ মুসলিমদের প্রতি ঘৃণামূলক হামলার ঘটনাও ঘটছে।

জার্মানির পুলিশের জরিপ অনুযায়ী, ২০১৮ সালে মুসলিমদের প্রতি ঘৃণামূলক ৮১৩টি অপরাধের রেকর্ড পেয়েছে তারা। এর মধ্যে শারীরিক হেনস্তা, হুমকি দিয়ে চিঠি এবং মৌখিকভাবে আক্রমণের ঘটনাও ঘটেছে। এসব হামলায় দেশটির ৫৪ জন মুসলিম নাগরিক আহত হয়েছেন।