ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:৫৯ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘হাতে পায়ে গাছের মত শেকড় গজানো বৃক্ষ মানবের সমস্ত ব্যায় ভার বহন করবে সরকার’

হাতে পায়ে গাছের মত শেকড় গজানো বিরল রোগে আক্রান্ত বৃক্ষ মানব (ট্রি-ম্যান) আবুল হোসেন বাজদারের চিকিৎসা এবং থাকা, খাওয়াসহ সমস্ত ব্যায় ভার বহন করবে সরকার।
আজ বৃহষ্পতিবার জাতীয় বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারী ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এ কথা জানান।
এর আগে মন্ত্রী বার্ণ ইনস্টিটিউটে ভর্তি খুলনার পাইকগাছার যুবক দরিদ্র ভ্যানচালক আবুল হোসেন (২৭)কে দেখতে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। এ সময়ে মন্ত্রী তার পরিবারের সদস্য ও চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেন। আবুল হোসেন বার্ন ইউনিটের ৫০৫ নম্বর কেবিনে ভর্তি আছেন।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে এটি একটি বিরল রোগ। এ বিরল রোগে আক্রান্ত রোগীকে দেখতে ও চিকিৎসার খোঁজ নিতে এসেছি। ১০ বছর ধরে সে এ রোগে আক্রান্ত। পরিবারের সাথে কথা বলে বুঝতে পেরেছি, তাদের ধারণা ছিল যে তার চর্মরোগ হয়েছে এবং এ জন্য তারা চর্মরোগের চিকিৎসা নিয়েছে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আবুল হোসেনের চিকিৎসকরা জানান, এ রোগটিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি আমরা। এ বিষয়ে বিস্তারিত গবেষণা করা হচ্ছে। তার চিকিৎসার জন্য বিদেশি চিকিৎসকের পাশাপাশি জাপানে বসবাসরত একজন বাংলাদেশি চিকিৎসকের সাথেও যোগাযোগ করা হচ্ছে।
তারা আরও বলেন, প্রাথমিক ভাবে রোগীর ইতিহাস এবং শারীরিক পরীক্ষা করে আমরা ধারনা করিছি আবুল ‘এপিডার্মো ডিসপ্লেসিয়া ভেরাসিফরমিস’ রোগে আক্রান্ত। এ রোগ ট্রি ম্যান হিসাবে পরিচিত।
চিকিৎসকরা বলেন, আমরা ইতোমধ্য যুক্তরাষ্ট্রের নরিস কম্প্রেহেনসিব ক্যান্সার সেন্টারের চিকিৎসক মার্টিন কাস্টের সাথে যোগাযোগ করেছি। তিনি আমাদের রোগীর কিছু রক্ত ও টিস্যু বায়োপসি পরীক্ষার জন্য পাঠাতে বলেন। আমরা তখন ডাব্লুএইও এর সাথে যোগাযোগ করি এবং তারা আমাদের সহযোগীতার আশ্বাস দিয়েছে। আমরা দ্রুত রক্ত ও টিস্যু পরীক্ষার জন্য পাঠানোর চেষ্টা করছি। রোগীর প্রাথমিক পর্যায়ের সব পরীক্ষা নিরীক্ষার পরে রোগ নির্ণয় শেষে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত মোতাবেক পরবর্তী চিকিৎসা নির্ধারণ করা হবে।
এ সময়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান, জাতীয় বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারী ইনস্টিটিউটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্ত লাল সেন, আবুলের চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
ইতোমধ্যে আবুল হোসেনের চিকিৎসার জন্য ৬ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। গত শনিবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করা হয় আবুলবাজদারকে।