ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:১০ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

সড়ক দুর্ঘটনায় ভূমিমন্ত্রীর ছেলেসহ নিহত ৭

টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু ও সেতুসংলগ্ন এলাকায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর ছেলে শরীফ রানাসহ (৪২) সাতজন নিহত হয়েছেন। এতে পুলিশসহ ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শনিবার ভোরে ঘন কুয়াশার কারণে এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে ভূমিমন্ত্রীর ছেলে শরীফ রানার পরিচয় জানা গেছে। তিনি মাইক্রোবাসে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। নিহত অন্যদের পরিচয় জানা যায়নি।

ঘন কুয়াশার কারণে বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর ও আশপাশের এলাকায় ভোর-রাত থেকে দুর্ঘটনা ঘটতে থাকে। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ির মধ্যে রয়েছে পুলিশের পিকআপ ভ্যান, এ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি, বাস ও ট্রাক। তবে নিহত সাতজন বাস ও মাইক্রোবাসের যাত্রী। এ সময় আহত হয়েছে পুলিশসহ ৩০জন।

আহতদের টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সিরাজগঞ্জ সদস হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকেই সেতুর এক লেনে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা উদ্ধার কাজ করছে ।

এদিকে ভূমিমন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা রেজুয়ানুল হক জানান, রানা শরীফ তার স্ত্রীসহ দু’জন নিকট আত্মীয়কে সঙ্গে নিয়ে তার চিকিৎসার জন্য মাইক্রোবাসে করে ঢাকা যাচ্ছিলেন। বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর শুক্রবার রাতে কুয়াশায় তাদের গাড়ি আটকে যায়। সেসময় পেছন থেকে আসা একটি গাড়ি সজোরে মাইক্রোবাসটিকে ধাক্কা দেয় এবং গাড়িটি দুর্ঘটনার শিকার হয়। এ সময় রানা শরিফ তার স্ত্রী ও সফরসঙ্গী অপর ৩ জন আহত হন। রানাসহ আহত সবাইকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতলে নেয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় রানাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দুপুর ১টায় রানার মরদেহ নিয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল থেকে নিজ বাড়ি পাবনার ঈশ্বরদীর উদ্দেশ্যে দেয় স্বজনরা। এসময় ঈশ্বরদী পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, ভূমিমন্ত্রীর এপিএস বশির আহমেদ বকুল, মরহুমের স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজন সঙ্গে ছিলেন।

মরহুমের মরদেহ আজই ঈশ্বরদী উপজেলার লক্ষ্মিকুন্ডা গ্রামের নিজ বাড়ির পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে। ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এমপির ৫ ছেলে ৫ মেয়ের মধ্যে রানা চতুর্থ ও ছেলেদের মধ্যে মেঝ।