ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:২৮ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘স্পিকারের সাথে আফগানিস্তানের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সাক্ষাৎ’

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে সফররত আফগানিস্তানের মহিলা বিষয়ক সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সন মিস ফৌজিয়া কুফি-এর নেতৃত্বে ৬ সদস্যের একটি সংসদীয় প্রতিনিধিদল আজ রোববার তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেছেন।
প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন মহিলা বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য টুরপিকে প্যাটম্যান, কোবরা মুস্তাফাউই, জাহরা তোকি জাবুলি, রুবাবা পারওয়ানি ডারউইশ ও আজিজি জালিস।
সাক্ষাতকালে তারা নারীর ক্ষমতায়ন, নারী শিক্ষা, জেন্ডার সমতা, নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, নারীর প্রতি সহিংসতারোধ, সংসদীয় কার্যক্রমে নারীর অংশগ্রহণ প্রভৃতি বিষয়ে আলোচনা করেন।
প্রতিনিধি দরের সদস্যরা বলেন, নারীর ক্ষমতায়নের দিক থেকে বাংলাদেশ একটি রোল মডেল। বর্তমানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, সংসদের স্পিকার এবং সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা তিন জনই নারী। এটি সমসাময়িক বিশ্বে একটি অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এর ফলে বাংলাদেশের জেন্ডার ভিত্তিক সকল সামাজিক নির্দেশকগুলোর ব্যাপক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ গুরুত্ব প্রদান কারায় এবং তাঁর গৃহীত বিভিন্ন নীতিমালা ও পদক্ষেপের সফল বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশে নারী উন্নয়নের ব্যাপক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে।
তিনি বলেন, নারী ও শিশুদের উন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপের কারণে এর দীর্ঘস্থায়ী ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে যেমন অগ্রসরমান তেমনি কর্মেক্ষেত্রেও তারা অবদান রাখছে। তিনি তৈরি পোশাক শিল্পের উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, এ খাতে প্রায় ৮০ শতাংশ কর্মী নারী এবং তারা বৈদেশিক অর্থ উপার্জনে অবদান রাখছে।
স্পিকার বলেন, কর্মজীবী নারীদের জন্য বর্তমান সরকার ডরমেটরী চালু করেছে এবং তাদের শিশু সন্তানদের জন্য ডে-কেয়ার সেন্টার চালু করা হয়েছে। নারী ও পুরুষদের একসাথে কাজ করার সুযোগ থাকায় নারী পুরুষ কর্মীদের মানসিকতায় পরিবর্তন এসেছে। এতে কর্ম পরিবেশের উন্নতি ঘটেছে।
সাক্ষাৎ প্রদান করায় প্রতিনিধিদল স্পিকারকে ধন্যবাদ জানান। স্পিকার বাংলাদেশ সফরে আসায় এবং তার সাথে সাক্ষাৎ করায় আফগানিস্তানের সংসদীয় প্রতিনিধিদলকে ধন্যবাদ জানান।