ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৪:২৮ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ ইং

ডাকাতদের খোঁড়া সেই সুড়ঙ্গ, এখন তদন্ত করছে পুলিশ

সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ব্যাংকের কোটি টাকা লোপাট

শীর্ষ মিডিয়া ২৮ অক্টোবর ঃ  ঠিক হলিউডের মুভির কায়দায় সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ভারতের একটি ব্যাঙ্ক থেকে কোটি কোটি টাকার নগদ অর্থ আর স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়েছে সংঘব্ধ চোর। পুলিশ বলছে, এটি দেশের ইতিহাসে ব্যাঙ্ক থেকে অর্থ চুরির সবচেয়ে ঘটনাগুলোর একটি।

এই নাটকীয় ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানী দিল্লি থেকে মাত্র ৫০ মাইল দূরে হরিয়ানার গোহানা শহরে। আর ব্যাঙ্কে দেওয়ালি আর সপ্তাহান্তের ছুটি চলছিল বলে চুরির ঘটনার প্রায় দেড়দিন পরেও কেউ কিছু টের পায়নি।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ব্যাঙ্ক-চোরেরা রাষ্ট্রায়ত্ত পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ওই শাখাটির সামনে, রাস্তার ঠিক উল্টোদিকে একটি পরিত্যক্ত বাড়িকেই সুড়ঙ্গ তৈরির জন্য বেছে নিয়েছিল।

গত প্রায় এক মাস ধরে তারা ওই বাড়িটির নিচ থেকে উল্টোদিকের ব্যাঙ্কের স্ট্রংরুম পর্যন্ত একটি সুড়ঙ্গ খোঁড়ে। সুড়ঙ্গটি ছিল ১০০ ফুটেরও বেশি লম্বা আর প্রায় আড়াই ফুট চওড়া।

যে ভাঙাচোরা বাড়ির ভেতর থেকে তারা সুড়ঙ্গ খুঁড়ছিল, সেটির জানালাগুলো ছিল কার্ডবোর্ড দিয়ে ঢাকা। আর চারপাশে ছিল ধুলোময়লা আর মাটির স্তূপ, ফলে কেউ বুঝতেও পারেনি ভেতরে ঠিক কী ঘটছে।

আসল চুরির ঘটনাটি ঘটে শনিবার রাতের কোনও একটা সময়, ব্যাঙ্কে তখন চলছিল লম্বা ছুটি। সুড়ঙ্গপথে হানা দিয়ে ব্যাঙ্কের স্ট্রংরুমে ঢুকে তারা গ্রাহকদের লকারগুলো ভাঙতে শুরু করে।

পুলিশি তদন্তে জানা গেছে, ওই ব্যাঙ্কের স্ট্রংরুমে মোট ৩৬০টি লকার ছিল, যার মধ্যে চোরেরা অন্তত ৯০টি ভাঙতে সক্ষম হয়। এই সব লকার থেকেই তারা প্রচুর পরিমাণ গয়নাগাটি ও নগদ অর্থ সরিয়েছে, যার সঠিক অঙ্কটা এখনও অজানা।

ধাতব বার দিয়ে সুরক্ষিত স্ট্রংরুমটি চোরেরা পুরো তছনছ করে দেয়, ব্যাঙ্কের ভল্ট থেকেও তারা বেশ কয়েক কোটি টাকার নগদ অর্থ সরিয়ে নিতে সক্ষম হয়।

সোমবার সকালে ব্যাঙ্ককর্মীরা যখন শাখাটি খুলতে আসেন, তখনই ধরা পড়ে এই দু:সাহসিক চুরির ঘটনাটি। পুলিশকে খবর দেওয়া সঙ্গে সঙ্গে, তারা তারপর গোটা জায়গাটি ঘিরে ফেলে তদন্ত শুরু করেন।

হরিয়ানা পুলিশ বা পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ কেউই এখনও মোট লুঠ হওয়া অর্থ ও অলঙ্কারের পরিমাণ জানাতে পারেনি। তবে পুলিশ স্বীকার করেছে, এটি ব্যাঙ্ক থেকে অর্থচুরির সবচেয়ে বড় ঘটনাগুলোর একটি।

মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। গোহানার ডেপুটি পুলিশ সুপার রাজীব দেশওয়াল জানিয়েছেন, তারা ব্যাঙ্কের গত কয়েকমাসের সিসিটিভি ফুটেজ এখন পরীক্ষা করছেন যাতে বোঝা যায় সন্দেহজনক কারও সেখানে আনাগোনা ছিল কি না।

ছ’বছর আগে তৈরি হয়েছিল জেসন স্ট্যাথাম আর স্যাফরন বারোস অভিনীত হলিউড মুভি ‘দ্য ব্যাঙ্ক জব’ – যার কাহিনী ছিল ১৯৭১ সালে লন্ডনের বেকার স্ট্রিটে লয়েডস ব্যাঙ্কের শাখায় একটি চুরির ঘটনার ওপর ভিত্তি করে।

সেখানেও একদল চোর ব্যাঙ্কের পাশে একটি চামড়ার জিনিসের দোকান ভাড়া নিয়ে তার নিচ থেকে ব্যাঙ্ক পর্যন্ত ৫০ ফিট লম্বা সুড়ঙ্গ খুঁড়েছিল। আর সেই চুরির ঘটনায় আজ পর্যন্ত কেউ ধরাও পড়েনি।

বছরকয়েক আগে ভারতের কেরলেও সুড়ঙ্গ খুঁড়ে একটি ব্যাঙ্কে চুরি করেছিল একদল দুষ্কৃতী। পরে ধরা পড়ে সেই দলের পান্ডাও স্বীকার করে, বলিউডের একটি সিনেমা দেখেই তারা ওই চুরির ছক কষে।  সূত্র বিবিসি