দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

সিভিল এভিয়েশনের দুর্নীতির উৎস চিহ্নিত

সিভিল এভিয়েশনের ১১টি খাতের দুর্নীতির উৎস চিহ্নিত এবং এসব দুর্নীতি প্রতিরোধে সুপারিশমালাসহ দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে হস্থান্তর করেছে দুদক।

রোববার দুদক কমিশনার ড মোঃ মোজাম্মেল হক খান সচিবালয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলীর কাছে এই অনুসন্ধানী এবং পর্যবেক্ষণ মূলক প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন।

দুদকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়।

এ সময় মোজাম্মেল হক খান বলেন, দুর্নীতির কারণসমূহ চিহ্নিত করে তা বন্ধে সুনির্দিষ্ট সুপারিশসহ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কমিশনের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ সংক্রান্ত প্রাতিষ্ঠানিক টিম এই অনুসন্ধানী এবং পর্যবেক্ষণ মূলক প্রতিবেদন প্রস্তুত করেন।

কমিশনার বলেন, একইভাবে ‘সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ’ এর জন্য গঠিত প্রাতিষ্ঠানিক টিম ওই প্রতিষ্ঠানের নির্মাণ ও উন্নয়নমূলক কাজ, কনসালটেন্ট নিয়োগে, বিমানবন্দরের স্পেস অথবা স্টল ও বিলবোর্ড ভাড়া, মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজসহ ১১টি খাতের দুর্নীতির উৎসের কথা উল্লেখ করেছে।

প্রতিবেদনে একইভাবে এসব দুর্নীতি প্রতিরোধে ১১টি সুনির্দিষ্ট সুপারিশ প্রণয়ন করা হয়েছে।

এদিকে ‘সিভিল এভিয়েশনের পাশাপাশি বিমানেরও ৮টি খাতের দুর্নীতির উৎস এই প্রতিবেদনে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব দুর্নীতি প্রতিরোধে ৮ টি সুনির্দিষ্ট সুপারিশমালা এই প্রতিবেদনে রয়েছে।

মোজাম্মেল হক খান বলেন, কমিশনের নির্দেশনা আলোকে বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক টিম ইতোমধ্যেই স্বাস্থ্য, শিক্ষাসহ বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে এজাতীয় প্রতিবেদন প্রেরণ করে।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয় এবং সমৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখতে দুর্নীতি দমনে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত শূন্য সহিষ্ণুতা নীতি বাস্তবায়নের কোনো বিকল্প নেই। বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূতি উজ্জল করতে হলে সম্মিলিতভাবে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে হবে।

এসময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী দুর্নীতি দমন কমিশনের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, শুধু দুর্নীতি নয় যারা কাজে অবহেলা করবেন তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন, এই মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতিবাজদের কোন স্থান নেই।

মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক এসময় বক্তব্য রাখেন।