Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:২৮ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

রুহুল কবির রিজভী
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ফাইল ফটো

সিইসি’র প্রশ্রয়ে ভোট ডাকাতির অভিযোগ বিএনপির

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু হওয়ার ‘সার্টিফিকেট’ দিয়ে সিইসি ভোট ডাকাতিকেই প্রশ্রয় দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। বলা হয় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশন জনগণের সঙ্গে যে প্রতারণা করেছেন সে জন্য তাকে চরম মূল্য দিতে হবে।

শুক্রবার রাজধানীর নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে নির্বাচন ও ভোটকে জাদুঘরে পাঠানোর সব বন্দোবস্ত করে সিইসি জনগণের সঙ্গে যে প্রতারণা করেছেন সে জন্য তাকে চরম মূল্য দিতে হবে।

রিজভী বলেন, নির্বাচন কমিশন গাজীপুরের নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু হওয়ার ‘সার্টিফিকেট’ দিয়ে ভোট ডাকাতিকেই প্রশ্রয় দিল।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে গাজীপুর ও খুলনাতে যে নাটক মঞ্চস্থ করা হল তাতে ভোটাররা ভোটের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে বলে মনে করেন বিএনপির এ নেতা।

তিনি আরও বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সহায়তায় সরকার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আরেকটি প্রতারণার নির্বাচন উপহার দিল। এই নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশন ও আওয়ামী লীগ তৃপ্তির ঢেকুর তুললেও দেশে-বিদেশে এটি কলঙ্কিত নির্বাচনের আরেকটি ইতিহাস হয়ে রয়ে গেল।

‘ভোটকেন্দ্র দখল করে সিল মারার দৃশ্য আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসিসহ দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শত শত কেন্দ্রের ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে’, যোগ করেন তিনি।

রিজভী বলেন, ইতোমধ্যে গাজীপুর ও খুলনা সিটি নির্বাচনে ভোট ডাকাতির আনন্দ-উল্লাসে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে উন্নয়ন সহযোগী দেশসহ দাতা সংস্থা ও দেশি-বিদেশি গণমাধ্যম।

তিনি বলেন, ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমকে সরকারের সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। দেশের অন্যান্য গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কেন্দ্র দখল করে সিল মারার যেসব দৃশ্য প্রকাশ হয়েছে, ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকলে বর্তমান নির্বাচন কমিশন পদত্যাগ করত।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ তো আন্তর্জাতিকভাবে স্বৈরাচারের স্বীকৃতি আগেই পেয়েছে, তাই ভোট ডাকাতির নির্বাচন নিয়ে ওবায়দুল কাদেরদের গলাবাজি থামবে না এটিই স্বাভাবিক। তারা সব লজ্জার ভূষণ খুলে ফেলেছে।