ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৩২ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সাহারা কেন কলেজে পর্ষদে?

উত্তরার ঢাকা উইমেন কলেজে ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনকে পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মনোনীত করার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে।

সোমবার সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে এ রিট আবেদন করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ইউনূছ আলী আকন্দ।

তিনি কলেজ পরিচালনা পর্ষদের বিদায়ী কমিটির সদস্য বাহাউদ্দিন আহমেদ বাবুলের পক্ষে রিট আবেদনটি করেন।

আগামীকাল মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে হাইকোর্টের বেঞ্চে রিট আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে বলে পরে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ইউনূছ আলী আকন্দ।

সম্প্রতি হাইকোর্ট বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হিসেবে এমপিদের মনোনীত করার বিধান অবৈধ ঘোষণা করার পর এই রিটটি করা হলো।

গত ৬ সেপ্টেম্বর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সাহারা খাতুনকে কলেজটির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মনোনীত করার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছে রিট আবেদনে।

তাকে মনোনীত করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চিঠির কার্যকারিতাও স্থগিত চাওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনকে কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মনোনীত করা কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না এবং ওই চিঠিটি কেন প্রত্যাহার করা হবে না- এই মর্মে রুল চাওয়া হয়েছে।

রিট আবেদনে শিক্ষাসচিব, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিদর্শক, ঢাকা উইমেন কলেজের অধ্যক্ষ, সাহারা খাতুনসহ সাতজনকে বিবাদী করা হয়েছে।

গত ৬ জুন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হিসেবে এমপিদের মনোনীত করার বিধান অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্ট রায় দেন।

ওই রায়ের মূল চেতনা অনুসারে সংসদ সদস্যরা পরিচালনা পর্ষদে থাকতে পারেন না। এই যুক্তিতে রিটটি করেছেন বলেও জানিয়েছেন আইনজীবী ইউনূছ আলী আকন্দ।