Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:০৯ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

নজিবুর রহমান
নজিবুর রহমান, ফাইল ফটো

‘সার্বক্ষণিক বন্দর চালুর সিদ্ধান্তে আমদানি-রফতানি গতি পাবে’

আগামী ১ আগস্ট থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রম দিনে ২৪ ঘণ্টা ও সপ্তাহে সাতদিন চালু থাকবে। একই সময় থেকে বেনাপোল স্থল বন্দরের কার্যক্রমও ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।এতে আমদানি-রফতানি আরো গতিশীল হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।

শনিবার চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস ও চট্টগ্রাম বন্দরের আমদানি-রফতানি কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন তিনি ।

সার্বক্ষণিক কাস্টমস হাউসে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম চালু থাকার ফলে বন্দর ব্যবহারকারীরা তিনটি সুবিধা পাবে উল্লেখ করে নজিবুর রহমান বলেন, বন্দর ব্যবহারকারীসহ সবাই তিন দিক থেকে উপকৃত হবেন। এর মধ্যে প্রথমত,বন্দর ব্যবহারকারীরা সার্বক্ষণিক সেবা পাবেন। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সবসময় সংযুক্ত থাকতে পারবেন। দ্বিতীয়ত, ১২ ঘণ্টার পরিবর্তে ২৪ ঘণ্টা বন্দর চালু থাকলে পণ্য শুল্কায়নসহ সব ক্ষেত্রেই চাপ কমবে, দক্ষতা বাড়বে। তৃতীয়ত, সারা দেশের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় একটি ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।যেহেতু রাতে পণ্য খালাস হবে, তাতে জনগণের চলাচলে বাধা সৃষ্টি হবে না।

বন্দর সার্বক্ষণিক চালু রাখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় অংশীদার বন্দর কর্তৃপক্ষ একথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমদানি-রফতানি পণ্য দ্রুত খালাসের স্বার্থে আমরা দ্বিপাক্ষিকভিত্তিতে সমন্বিতভাবে কাজ করছি। এর পাশাপাশি সরকারের অন্যান্য বিভাগ যেমন-লেনদেনের জন্য ব্যাংক ব্যবস্থা, পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বিএসটিআই,আনবিক শক্তি কমিশনের সার্বক্ষণিক উপস্থিতি প্রয়োজন। এসব অংশীদারদের নিয়ে প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত,ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস পরীক্ষামূলকভাবে সার্বক্ষণিক পণ্য শুল্কায়ন, পণ্য চালানের পরীক্ষণ ও খালাস কার্যক্রম শুরু করেছে। ১ আগস্ট থেকে এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ওইদিন চট্টগ্রাম ও বেনাপোল বন্দরের ২৪ ঘন্টা সেবা প্রদান কার্যক্রম উদ্ধোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এনবিআর পিএসসি থেকে সম্প্রতি যে ৬০০ সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা পেয়েছে, এর অনেককেই এই দুই বন্দরে পদায়ন করা হবে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে বেসরকারিভাবে যেসব ইনল্যান্ড কনটেইনার ডিপো (আইসিটি) চালু আছে- সেখানে স্ক্যানিং মেশিন বসানোর বাধ্যবাধকতা আছে।তারাও স্ক্যানিং বসানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে, কেননা ২৪ ঘন্টা বন্দর চালু রাখতে হলে তাদের দক্ষতাও বাড়াতে হবে।

নজিবুর রহমান জানান, আগামী সোমবার চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ ও চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউজ দ্বিপাক্ষিক ভিত্তিতে সব অংশীজনদের নিয়ে সভা করবে।সেখানে বন্দর ২৪ ঘন্টা কার্যকরভাবে চালু রাখার পথনকশা নির্ধারণ করা হবে।

উল্লেখ্য, ২৪ ঘন্টা বন্দর চালু থাকলে আমদানি-রফতানি পণ্যচালানের সার্বক্ষণিক পণ্য শুল্কায়ন ছাড়াও আউটপাস কার্যক্রম (জেটিতে পণ্য পরীক্ষণ ও পণ্য চালান খালাস প্রক্রিয়া) চালু থাকবে।

বন্দর পরিদর্শনের পর এনবিআর চেয়ারম্যান চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে রাজস্ব আহরণ ও চট্টগ্রাম বন্দরের অবকাঠামো উন্নয়ন বিষয়ক কৌশলগত মতবিনিময় সভা করে। এতে নৌপরিবহন সচিব অশোক মাধব রায়, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল খালেদ ইকবালসহ এনবিআর ও বন্দরের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।