ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৩১ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সাংবাদিকদের ই-মেইল ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারিতে

ব্রিটেনের ইলেক্ট্রনিক গোয়েন্দা সংস্থা জিসিএইচকিউ বিশ্বের কয়েকটি বৃহত্তম মিডিয়া প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকদের ই-মেইলের ওপর নজরদারি করেছে বলে সোমবার খবর দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র দ্য গার্ডিয়ান।
খবরে বলা হয়, জিসিএইচকিউ বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান, লা মন্ডে, এনবিসি, দ্য নিউইয়র্ক টাইমস, রয়টার্স, দ্য সান ও দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিকদের ই-মেইল সংগ্রহ করে।
সাবেক মার্কিন গোয়েন্দা কন্ট্রাক্টর এডোয়ার্ড ¯েœাডেলের ফাঁস করা নথিপত্র বিশ্লেষণ করে গার্ডিয়ান জানায়, মার্কিন ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সির সমতুল্য ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থাটি ২০০৮ সালে ১০ মিনিটেরও কম সময়ে যে ৭০ হাজার ই-মেইল সংগ্রহ করে, সাংবাদিকদের ই-মেইলগুলোও এর মধ্যে ছিল।
গার্ডিয়ানের রিপোর্টে বলা হয়, ইন্টারনেটের তথ্য মহাসরণি ফাইবার অপটিক কেবলস ট্যাপ করে এসব ই-মেইল সংগ্রহ করা হয়।
তবে রিপোর্টে বলা হয়, ফাঁস করা নথিপত্রে সাংবাদিকদের পরিকল্পিতভাবে টার্গেট করা হয়েছে কিনা তা উল্লেখ করা হয়নি।
জিসিএইচকিউর একজন মুখপাত্র গার্ডিয়ানকে জানান, সংস্থার যাবতীয় কার্যক্রম একটি সুনির্দিষ্ট আইন ও নীতিগত কাঠামোর মধ্যে সম্পন্ন করা হয়ে থাকে।
পত্রিকাটির মতে সংস্থাটি সাংবাদিকদেরও ‘সম্ভাব্য নিরাপত্তা হুমকি’ বিবেচনা করে থাকে।
এদিকে সোমবার ব্রিটিশ সংবাদপত্রগুলো শতাধিক সম্পাদক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের কাছে এক যৌথ চিঠিতে বিচারকের সিদ্ধান্ত ছাড়া আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের সাংবাদিকদের ফোন রেকর্ড প্রদর্শন করা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন।
চিঠিতে রাষ্ট্র কর্তৃক সাংবাদিকদের সূত্রের গোপনীয়তা রক্ষার গুরুত্বকে স্বীকৃতি দেয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেয়া হয়।