Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:২৬ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

গাইবান্ধার সাঁওতালরা
বরাদ্দকৃত ত্রাণ সামগ্রী

সাঁওতালরা সরকারি ত্রাণ নিল না

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সরকারের দেয়া ত্রাণ সামগ্রী প্রত্যাখ্যান করেছেন সাঁওতালরা।

জেলা প্রশাসনের ত্রাণ ভাণ্ডার থেকে দেয়া ত্রাণ সামগ্রী গাড়িতে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল হান্নান প্রশাসনের লোকসহ সোমবার সকালে মাদারপুর মিশন গীর্জা এলাকায় হাজির হন।

ত্রাণ বিতরণ করা হবে এমন খবর পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ও দরিদ্র সাঁওতাল পরিবারগুলো এগিয়ে যান। কিন্তু পরে এটি প্রশাসনের ত্রাণ হওয়ায় তারা সেগুলো গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বাড়িতে ফিরে যান।

এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত সাঁওতালদের বক্তব্য, ‘যারা আমাদের গুলি করে হত্যা করেছে, বাড়িতে আগুন দিয়েছে, বাপ-দাদার জমি থেকে উচ্ছেদ করেছে, মামলা দিয়েছে তাদের দেয়া ত্রাণ সামগ্রী গ্রহণ করব না।’

এসময় উচ্ছেদকৃত জমিতেই পুনর্বাসন ও দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তির দাবি জানান তারা।

উল্লেখ্য, জেলা প্রশাসনের বরাদ্দকৃত ত্রাণ সামগ্রী ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ জন পরিবারের মধ্যে বিতরণের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এতে প্রত্যেক পরিবারের জন্য ২০ কেজি চাল, ১ লিটার সয়াবিন, ১ কেজি আলু, আধা কেজি মসুর ডাল, আধা কেজি লবণ এবং ২টি করে কম্বল বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা গ্রহণ না করায় দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে ত্রাণ সামগ্রীগুলো ফিরিয়ে নেয়।

এ ব্যাপারে সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামার ভূমি উদ্ধার কমিটির সহ সভাপতি ফিলিমন বাস গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত আদিবাসীরা প্রশাসনের ওই ত্রাণ সামগ্রী প্রত্যাখান করেছে।’

মাদারপুর গ্রামে ক্ষতিগ্রস্ত ইলিখা মার্ডি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা প্রশাসনের সাহায্য নেব না। তারা আমাদের গুলি করেছে, আমাদের হত্যা করেছে, আমাদের ঘরবাড়িতে আগুন দিয়েছে, তাদের দেয়া খাবার আমরা গ্রহণ করব না। আমরা আমাদের বাপ-দাদার জমি ফিরে পেতে চাই।’