ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৪২ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

সহিংসতায় ১৩ পুলিশ নিহত: নিয়োগ হবে ৫০ হাজার

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন। আপনাদের সহযোগিতা আমাদেরকে অনুপ্রানিত করবে।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সরকার পুলিশ বাহিনীর শক্তি বাড়াতে ৫০ হাজার নতুন জনবল বাড়ানোর উদ্যোগ গ্রহন করেছে।
“প্রধানমন্ত্রী জনবল বৃদ্ধি করতে ইতিমধ্যে নতুন এই ৫০ হাজার পদ সৃষ্টির ঘোষইা দিয়েছেন” উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী মহা-পুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) কে নতুন জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক উদ্যোগ গ্রহন করতে নির্দেশ দিয়েছেন।
তিনি বলেন, সরকার বিগত ৫ বছরে পুলিশ বাহিনীতে ৩২ হাজার জনবল নিয়োগ দিয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী আজ দুপুরে পুলিশ সপ্তাহ-২০১৫ উপলক্ষ্যে রাজধানীর রাজারবাগে সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তাদের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মোখলেসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব মোজাম্মেল হক খান, মহা-পুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) শহিদুল হক, র‌্যাবের মহাপরিচারক (ডিজি) বেনজীর আহমদ, অতিরিক্ত আইজিপি (স্পেশাল ব্রাঞ্চ) মো: জাবেদ পাটোয়ারী ও ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া।
সমাবেশে সারাদেশ থেকে আগত পুলিশের সিনিয়র কর্মকতাগণ তাদের সমস্যা তুলে ধরেন।
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশ ও জাতির নিরপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ ও র‌্যাবকে সরকার যুগোপযোগী ও প্রযুক্তিগতভাবে আধুনিকায়ন করতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
তিনি বলেন, বিগত ২০১৩ সালে হরতাল, অবরোধকালে সহিংসতাচলাকালে পুলিশ ও র‌্যাব বাহিনীর সদস্যরা নিজেদের জীবন বাজি রেখে দায়িত্ব পালন করেছে। বিগত বছরে সন্ত্রাসীদের হাতে ১৭জন ও গত একমাসে বিএনপি-জামায়াতের হরতাল, অবরোধ চলাকালে সহিংসতায় এ পর্যন্ত ১৩জন সদস্য নিহত হয়েছেন।
তিনি বলেন, অপরাধ দমনে আমরা চাই একটি সুশৃংখল, দক্ষ ও পেশাদার পুলিশ বাহিনী গড়ে তুলতে। সে জন্য যা যা করার দরকার সরকার তা করবে। তাই সরকার মনে করে পুলিশের পিছনে সকল খরচ আর্থিক ব্যয় নয় এটা দেশ ও জাতির নিরাপত্তার জন্য বিনিয়োগ।
তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধী ও মানবতা বিরোধী বিচার প্রক্রিয়ার সময়, সংসদ নির্বাচন, জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদ দমনে পুলিশ এবং র‌্যাবের সদস্যরা সাহসি ভূমিকা পালন করেছেন। পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা দেশের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতে সমান্তরালভাবে প্রশংসনীয় কাজ করছেন।
জাতিসংঘে পুলিশ বাহিনীর অংীশদার হিসাবে দীর্ঘদিন ধরে প্রশংসার সাথে কাজ করছে। জাতিসংঘ বাংলাদেশ থেকে আরো পুলিশ সদস্য নিতে আগ্রী বলে প্রতিমন্ত্রী জানান।
তিনি বলেন, দেশের সাইবার অপরাধ দমনে সরকার সাইবার ক্রাইম ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে কাউন্টার টেরিরিজম পুলিশ ইউনিট গঠনের ব্যপারে নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, র‌্যাবের সক্ষমতা আরো বাড়ানো হবে। র‌্যাবের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত ক্ষমতা বাড়াতে উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে।
তিনি আশা প্রকাশ করেন পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা পেশাদারিত্ব ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে কাজ করবেন।