ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:২৬ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

সরকার বকেয়া পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দিলেও আন্দোলনে শ্রমিকরা

পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ভাতা পহেলা বৈশাখের মধ্যে পরিশোধের সরকারের মন্ত্রীর ঘোষণার পরও খুলনার শ্রমিকরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

মঙ্গলবার সকাল সাতটা ১৫ মিনিট থেকে মিল ধর্মঘটের পাশাপশি লাগাতার সড়কপথ-রেলপথ অবরোধ শুরু করেছে সাত রাষ্ট্রায়ত্ত মিলের শ্রমিকরা।

বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত জুট মিল সিবিএ-ননসিবিএ ঐক্য পরিষদের ডাকা ধর্মঘটের অষ্টম দিন এবং দ্বিতীয় দফায় ডাকা লাগাতার রাজপথ ও রেলপথ অবরোধের দ্বিতীয় দিনে সকাল থেকে শ্রমিকরা মিছিল করে খুলনা-যশোর মহাসড়কের তিনটি স্পটে অবস্থান নিয়েছে। নগরীর খালিশপুর নতুন রাস্তা মোড়, আটরা-গিলাতলা ও যশোর অভয়নগরের রাজঘাট শিল্প এলাকার সাতটি জুট মিলের শ্রমিকরা এ অবস্থান নেন। মঙ্গলবার সকাল সাতটা ১৫ মিনিটে শুরু হয়েছে। অবরোধের ফলে বন্ধ রয়েছে এসব সড়কের যান চলাচল ও রেল যোগাযোগ।

নতুন রাস্তার মোড়ে আন্দোলনে অবস্থানরত প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিলের বলছেন, ‘বকেয়ার টাকা হাতে না পাওয়ায় পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’

বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত জুটমিল সিবিএ-ননসিবিএ ঐক্য পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক  আব্দুস সালাম জমাদ্দার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের বিষয়ে মঙ্গলবার বেলা তিনটায় পাট মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের সঙ্গে শ্রমিক নেতাদের বৈঠকের কথা রয়েছে। এ জন্য আমরা সকালে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছি। সেখানে ফলপ্রসু আলোচনা এবং দাবি আদায় হলেই কর্মসূচির ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বৈঠকের সিদ্ধান্তের আগ পর্যন্ত যথারীতি সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ চলবে বলে তিনি জানান।

এদিকে, সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ভাতা পহেলা বৈশাখের মধ্যে পরিশোধের জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়কে ৩০০ কোটি টাকা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই ৩০০ কোটি টাকাসহ সর্বমোট এক হাজার কোটি টাকা পাট মন্ত্রণালয়কে দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।