ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:২৬ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সজীব ওয়াজেদ জয়
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়

সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে : জয়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। অবশ্য এটা নতুন কিছু নয়- ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের নৃশংস হত্যাযজ্ঞের পর থেকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

তিনি আজ ধানমন্ডিতে দলের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংসদ সদস্যগণের ভূমিকা শীর্ষক ৩ দিনের এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় হয়ে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরতে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে জয় বলেন, সরকার বিরোধী অপপ্রচারের মোকাবেলায় আপনাদেরকে (আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় হতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বক্তৃতা করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, আমাদের ভাল কাজের জন্য মানুষ আমাদের ভোট দেবে, এমনটা ভেবে বসে বসে থাকলে চলবে না। কারণ এটা হচ্ছে প্রচারের যুগ। আমাদের বিরুদ্ধে অসত্য তথ্যের অপপ্রচার মোকাবেলায় আমাদেরকে উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রচার চালাতে হবে।

তিনি বলেন, কেবল কাজ করাই যথেষ্ট নয়, বরং জনগণের কল্যাণে আমরা কি করছি তা তাদেরকে জানাতে হবে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা ৩২ কোটি পাঠ্যপুস্তক, ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপায়ন, পদ্মা সেতু নির্মাণ ও বিদ্যুৎ উৎপাদনসহ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের উল্লেখ করেন।

জয় বলেন, এতকিছু করার পরও সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। অবশ্য এটা নতুন কিছু নয়- ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের নৃশংস হত্যাযজ্ঞের পর থেকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

জয় সংসদ সদস্যগণকে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পর্কে প্রতিদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রতিদিন অন্তত একটি করে পোস্ট দিন। আমাদের একাউন্ট (আওয়ামী লীগের সোস্যাল মিডিয়া) শেয়ার করুন। যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে সব ধরনের কারিগরি সহযোগিতা দেয়া হবে।

তিনি বলেন, আপনার এ মাধ্যমে ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দবোধ না করলে একজন পিএস নিয়ে নিন। তিনি সামাজিক মাধ্যমে উন্নয়ন কর্মকান্ডের পোস্ট দিবেন।

ওবায়দুল কাদের বিএনপির ভিশন ২০৩০ কে জনগণের সঙ্গে ধাপ্পাবাজি হিসেবে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, তাদের এ ভিশন হচ্ছে জনগণের সঙ্গে পরিহাসÑ যা সত্যের অপলাপ মাত্র।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি ক্ষমতা গ্রহণের পর বিকল্প পাওয়ার হাউস হিসেবে হাওয়া ভবন প্রতিষ্ঠা করেছিল। আবারো আর একটি হাওয়া ভবন বানাতে এ ভিশন তৈরি হয়েছে।

সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) সিনিয়র এ্যানালিস্ট এবং আওয়ামী লীগের নবগঠিত কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সাব কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ কর্মশালায় পার্লামেন্টারিয়ান ও রাজনীতিকদের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রভাব সম্পর্কে কৌশল তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, এই কৌশলের লক্ষ্য হচ্ছে অংশগ্রহণকারীকে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় তাদের যোগাযোগ ও গণযোগ ব্যাপকতর করা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিআইআর-এর সহকারি সমন্বয়কারি তন্ময় আহমেদ অপর একটি উপস্থাপনা তুলে ধরেন।

আওয়ামী লীগ সিআইআর-এর সহযোগিতায় ৩ দিনের এ কর্মশালার আয়োজন করছে।

কর্মশালায় আজ রোববার প্রথম দিনে ৫০ জন এমপি অংশগ্রহণ করছেন। এতে আগামীকাল সোমবার ও পরশু মঙ্গলবার এ দু’দিনে আরো ১শ’ জন এমপি যোগ দেবেন।

 

শীর্ষ মিডিয়া/২ পবা-৭-৫

 

আরও পড়ুন 

দুর্নীতির টাকা পাচার করছে আ. লীগ নেতারা : মিনু