ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:১২ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

নাসিম
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম , ফাইল ফটো

‘সব ভেজাল ঔষুধের কোম্পানি বন্ধ করা হবে’

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ভেজাল ঔষুধের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, প্রয়োজনে ভেজাল ঔষুধের যত কোম্পানি আছে সব বন্ধ করা হবে।

তিনি বলেন, সরকার ভেজাল ঔষুধ তৈরির ৬৮টি কোম্পানি বন্ধ করেছে। এর মধ্যে ২৩টি স্থায়ী এবং বাকিগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে। এসব কোম্পানি চালু করে দিতে অনেকে তদবির করছেন, কিন্তু সেগুলো আমলে নেয়া হয়নি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে মহাখালীতে ঔষুধ প্রশাসন অধিদফতরের নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

ঔষধ প্রশাসনের এ প্রধান কার্যালয়টি রাজধানীর মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায় ছিল। সেখানে কর্মকর্তা-কর্মচারীর তুলনায় পরিসর অপর্যাপ্ত হওয়ায় মহাখালীতে এটি স্থানাস্তর করা হলো।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি সেক্টর উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় এসডিএএম অপারেশন প্লানের আরপিএ খাতের অর্থায়নে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের এ ভবনটি নির্মাণ করা হয়।

ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ঔষুধ শিল্প সমিতির উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রয়োজনে ভেজাল ঔষুধের যত কোম্পানি আছে সব বন্ধ করা হবে। এ ধরনের কোম্পানিকে যেনো ঔষুধ শিল্প সমিতির সদস্য না করা হয়, সে নির্দেশও দেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, যারা ভেজাল ঔষুধ বানায়, তারা অমানুষ। এসব কোম্পানির ঔষুধ খেয়ে আপনার সস্তান, স্বজনের জীবনও যেতে পারে। তাই এই সকল ভেজাল কোম্পানীকে অনুমোদন দেবেন না।

এদিকে পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী সন্ত্রাসী হামলায় আহত খাদিজা বেগমকে দেখতে যান। এ সময়ে তিনি ডাক্তারদের সাথে কথা বলেন এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।