বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বিদ্যুৎ বিপর্যয় দেখা দিয়েছে গতকাল শনিবার। একযোগে সারাদেশ বিদ্যুৎহীন হওয়ার ঘটনা এই প্রথম।  সকাল সাড়ে ১১টা  ২৭ থেকে শুরু করে রাত পৌনে দশটা পর্যন্ত গোটা দেশ একযোগে অন্ধকারে ডুবে ছিল। তারপর ঢাকার বেশ কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ আসলেও তা বেশী সময় স্থায়ী হতে পারেনি  রাত ১টা পর্যন্ত এমনটাই চলছিল , সারা দেশের পরিস্থিতি এখনো স্বাভাবিক হয়নি।

ইন্টারনেট বিহীন অবস্থার মত বিপর্যয়ও দেখা দিয়েছিল ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নে বিভোর দেশটির। প্রায় অর্ধদিবস বাংলাদেশ যেন বিদ্যুৎপূর্ব সেই যুগে ফিরে গিয়েছিল।

জনমনে আতঙ্কও কম দেখা যায়নি। সন্ধ্যা থেকে দোকানপাট বন্ধ করতে শুরু করেছিল দোকানিরা। দোকানে দোকানে ঘুরেও সন্ধ্যার দিকে মোমবাতি খুঁজে পাননি অনেকে। মোমবাতি, পানির জন্য মানুষকে ছুটোছুটি করতে দেখা গেছে।

রাজধানীর বাসাবাড়ি থেকে শুরু করে মসজিদে পর্যন্ত পানির তীব্র সংকট দেখা দেয়। পানি সংকটে বিপাকে পড়েন অনেকে। গতকালের বিদ্যুৎ বিপর্যয়জনিত কারনে ঢাকা ওয়াসা যদি পর্যাপ্ত পানি উত্তোলন করতে না পেরে থাকে তবে আজ ওয়াসার সরবরাহে ঘাটতি হলে রাজধানীতে ব্যাপক পানির সংকট দেখা দিতে পারে।

সর্বশেষ সংশোধিত: , মাধ্যম: