স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের ‘নীল-নকশাকারীদের’ তথ্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে চলে এসেছে।

আজ সোমবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক কর্ণেল (অব.) ফারুক খান, নগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, গুলশানে ইতালিয়ান নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যাকান্ড থেকে শুরু করে সর্বশেষ গুলশান ও শোলাকিয়া হামলা জাতীয়-আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। বাংলাদেশ দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছে। তবে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের অনেককে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব ঘটনার নীলনকশাকারীদের তথ্য আমাদের কাছে চলে এসেছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রতিদিন আমাদের সামনে নতুন করে একটি চ্যালেঞ্জ আসছে। গুলশান ট্রাজেডির পরপরই শোলাকিয়া ট্রাজেডি ঘটেছে। এ দেশে যতগুলো হত্যাকান্ড ঘটেছে সবগুলো হত্যাকান্ডে জড়িতদের আমাদের নিরাপত্তাবাহিনী চিহ্নিত করেছে।

তিনি বলেন, গুলশানের ঘটনার সময়ে আমরা অবাক বিস্ময়ে দেখলাম কিছু তরুণ যারা সমাজের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত। এরা একটা ভিন্ন মোটিভ নিয়ে এসেছে। আমরা এগুলো উদঘাটন করেছি। এগুলো অমানুষের কাজ, অধর্মের কাজ। কোন ধর্মে মানুষ হত্যা করা সমর্থন করে না।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, এ সমস্ত ষড়যন্ত্রকারীদের আমরা চিহ্নিত করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আজকে সমস্ত জাতি ঐক্যবদ্ধ। যারাই ষড়যন্ত্র করুক কোন লাভ হবে না।

সর্বশেষ সংশোধিত: , মাধ্যম: