Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:৪০ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

মসজিদে নববীর ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. মোহাম্মদ বিন নাসির বিন মোহাম্মদ আল খুজাইম

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ সফল : মসজিদে নববীর ভাইস প্রেসিডেন্ট

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে সফল দেশগুলোর একটি হিসেবে বাংলাদেশকে উল্লেখ করেছেন মসজিদে হারাম এবং মসজিদে নববীর ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. মোহাম্মদ বিন নাসির বিন মোহাম্মদ আল খুজাইম। তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে যে কয়েকটি দেশ সফলতা দেখিয়েছে তার মধ্যে বাংলাদেশ একটি। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ সফল হয়েছে।’

বর্তমান বিশ্বে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সাথে ইসলামকে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সাথে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নাই।… মুসলমানদের দেশে বাসকারী অমুসলিমদের জান-মালের দায়িত্ব মুসলমানদের। ’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে মসজিদে নববীর ইমাম ও খতিব ড. শায়খ আব্দুল মোহসিন বিন মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আল কাশেম এবং ইসলামী ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক শামীম মোহাম্মদ আফজাল বক্তৃতা করেন।

ড. মুহাম্মদ বিন নাসের আল খুজাইম বলেন, ‘সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমনের জোট নিয়ে দিন-রাত আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, ‘ইসলামিক মিলিটারি অ্যালায়েন্স টু ফাইট টেরোরিজম’ নামে ২০১৫ সালে সৌদি আরবের নেতৃত্বে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে একটি সামরিক জোট গঠিত হয়।

মুসলমানদের উদ্দেশ্যে ড. মুহাম্মদ বিন নাসের আল খুজাইম বলেন, ‘আজকাল দেখছি, মুসলমানের দেশে এক মুসলমান আরেক মুসলমানকে হত্যা করছে। এদের সাথে ইসলামের সম্পর্ক নেই। ইসলামে এটি বড় গুনাহ। কোনো বিধর্মীকেও কোনো মুসলমান বিনা কারণে হত্যা করতে পারে না। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ পাক বলেছেন, ‘একজন মুসলমানকে যদি আরেক মুসলমান হত্যা করে তার জন্য জাহান্নামের আগুন রয়েছে। তাকে কেউ এই আগুন থেকে বাঁচাতে পারবে না।’

তিনি বলেন, এমনকি মুসলমানের দেশে ভিন্ন ধর্মীদের জান-মালের নিরাপত্তা বিধান করাও আমাদের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, ‘যারা দেশে অশান্তি নিয়ে আসতে চায়, যারা জঙ্গিবাদে জড়িত, মানুষ হত্যা করছে, রক্তপাত ঘটাচ্ছে, যারা মানুষকে ভয়ভীতির মধ্যে রাখে, হত্যা বা জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করতে চায়, তাদের সাথেও ইসলামের সম্পর্ক নাই।’

যারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদে জড়িত, তারা দ্বীন-ই মাদরাসার ছাত্র হতে পারে না উল্লেখ করে ড. মোহাম্মদ বিন নাসির আল খুজাইম বলেন, ‘জঙ্গিবাদ মুক্ত করতে হলে ইসলামী সংস্কৃতি ও শিক্ষাকে মজবুত করতে হবে।’

তিনি বলেন, কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান আছে যেখানে মানুষকে পথভ্রষ্ট ও গোমরাহর শিক্ষা দেয়া হয়। তাদের বলে দাও, তোমাদের সাথে ইসলামের সম্পর্ক নেই। ইসলামের সবচেয়ে উত্তম প্রতিষ্ঠান হচ্ছে আপনার পরিবার, এরপর মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

তিনি বলেন, ‘আমাদের সৌদির বাদশাহ বলেছেন, যারা জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত হয়ে ইসলামের বদনাম করছেন তাদের সাথে ইসলামের সম্পর্ক নাই। তিনি বিশ্ব থেকে জঙ্গিবাদ মুক্ত করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’
মুসলিম বিশ্বের পবিত্র দুটি মসজিদের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, বিশ্বে সৌদি আরবই সর্বপ্রথম দেশ যারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিপক্ষে পদক্ষেপ নিয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশেও সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ চালানো হয়েছে। তাদের দমনের জন্য আমরা সর্বশক্তি নিয়োগ করেছি। যারা ইসলামের নামে সন্ত্রাসের শিক্ষা দিচ্ছে, তাদের সাথে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই। এই সন্ত্রাসীরা কি চায়, উদ্দেশ্য কি, সবাই জানি। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐকবদ্ধভাবে দাঁড়াতে হবে। সৌদি আরবকেও তারা ছাড়েনি।

সৌদি আরব যেভাবে সাহসের সাথে সন্ত্রাস-জঙ্গি দমনে ভূমিকা রেখেছে যেকারণে জঙ্গিরা সেখানে আস্তানা গড়তে পারেনি বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

সৌদি আরব এ বিষয়ে স্পেশাল ফোর্স গঠন করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কিভাবে ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাস দমন করতে পারি এই বিষয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমনে আলাদা ইনস্টিটিউট করেছি। জঙ্গি দমনে জাতিসংঘও তাঁদের সহযোগিতা করছে বলে তিনি জানান।