ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:৪২ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৩শে অক্টোবর ২০১৮ ইং

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়তে সম্মত দুই দেশ

ভারত ও পাকিস্তান এ অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়ন নিশ্চিত করতে উভয়ের সামগ্রিক দায়বদ্ধতার কথা তুলে ধরে সব ধরণের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াইয়ের ব্যাপারে সম্মত হয়েছে।
রাশিয়ার উফায় ব্রিকস সম্মেলনের ফাঁকে শুক্রবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এক বৈঠকে এ ব্যাপারে একমত পোষণ করেন। ঘন্টাব্যাপী বৈঠক শেষে উভয় নেতা এক যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন।
বৈঠকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে আগামী বছর সার্ক সম্মেলনে ইসলামাবাদ যেতে সম্মত হয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
বৈঠকে মুম্বাই হামলার প্রসঙ্গ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। হামলার পর চার বছর কেটে গেলেও পাকিস্তান অপরাধীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রথম থেকেই ক্ষুব্ধ ছিল দিল্লী। সূত্র জানায়, বৈঠকে লাকভিসহ হামলায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে কড়া ব্যবস্থা নিতে নওয়াজকে অনুরোধ করেছেন মোদি।
ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, সন্ত্রাস মোকাবিলায় খুব শীঘ্রই দিল্লীতে আলোচনায় বসবেন দুই দেশের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টারা।
বৈঠকে ভারত ও পাকিস্তান অমীমাংসিত সব বিষয়ে নিয়ে আলোচনায় বসতে সম্মত হয়েছে। মোদি ও শরিফ সব ধরণের সন্ত্রাসের নিন্দা জানিয়েছেন এবং সন্ত্রাসবাদ দুর করতে সহযোগিতার ব্যাপারে একমত হয়েছেন।
উভয় নেতা শিগগিরই বিএসএফ ও পাকিস্তান রেঞ্জার্সের ডিজি পর্যায়ের বৈঠক করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। উভয়পক্ষ আগামী ১৫ দিনের মধ্যে স্ব স্ব দেশের কারাগারে আটক জেলে ও তাদের নৌকা ছেড়ে দিতে সম্মত হয়েছে।
বছরখানেক আগে হুরিয়ত নেতাদের সঙ্গে নয়াদিল্লীতে নিযুক্ত পাক হাইকমিশনারের বৈঠক-বিতর্কের জেরে দু’দেশের নির্ধারিত পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক বন্ধ করে দিয়েছিল সাউথ ব্লক। এরপর দুই দেশের মধ্যে ফোন-কূটনীতি হলেও বৈঠক হয়নি। অবশেষে আলোচনার টেবিলে বসল দুই দেশের দুই শীর্ষনেতা। বৈঠকটিকে অত্যন্ত ফলপ্রসু বলে ব্যাখ্যা করেছে দুই দেশই।