ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:৩২ ঢাকা, বুধবার  ২০শে জুন ২০১৮ ইং

সন্ত্রাসী হামলার আশংকায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

কুচকাওয়াজ, কনসার্ট আর আকাশভরা আতশবাজির আলোকছটার মধ্য দিয়ে ২৩৯তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করল যুক্তরাষ্ট্র। ওয়াশিংটনে অবস্থিত জাতীয় পার্ক ন্যাশনাল মলে আয়োজিত আতশবাজি উৎসবে যোগ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তার সঙ্গে ছিলেন ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামাও। তবে ওয়াশিংটনে দিনভর বৃষ্টি থাকার কারণে সামরিক কর্মকর্তা আর তাদের পরিবারের জন্য আয়োজিত ফোর্থ অব জুলাই পিকনিক বাতিল করে হোয়াইট হাউস। ন্যাশনাল মলে উপস্থিত জনগণকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানান ওবামা। একই সঙ্গে এ দিনটি তার বড় মেয়ে মালিয়ার ১৭তম জন্মদিনও। স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়েছে ওয়াশিংটনের বাইরেও। ভার্জিনিয়ার মাউন্ট ভার্ননে একশ’ নতুন নাগরিকের নাগরিকত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠানে মূল বক্তা হিসেবে বক্তব্য রেখেছেন সিআইএ’র মহাপরিচালক জন ব্রেনান। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটন এবং তার স্ত্রী মারথা’কে নাটকের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। এদিকে ২৩৯তম স্বাধীনতা দিবসে সন্ত্রাসী হামলার আশংকায় দেশজুড়ে নেয়া হয় কড়া নিরাপত্তা। ন্যাশনাল মলে আতশবাজি উৎসবে যোগ দেয়ার জন্য জনগণকে পার হতে হয়েছে ১১টি চেক পয়েন্ট। নিউইয়র্কে আতশবাজি উৎসবকে কেন্দ্র করে মোতায়েন করা হয় ৭ হাজার অতিরিক্ত কর্মকর্তা।
১৭৭৬ সালের ২ জুলাই গ্রেট ব্রিটেনের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ১৩টি উপনিবেশ মুক্ত হয়। এরপর ৪ জুলাই চূড়ান্তভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়া হয়। এছাড়া দিনটি আরও নানাদিক থেকে তাৎপর্যপূর্ণ। দেশটির স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষরকারী দু’জন জন এডামস ও থমাস জেফারসন একইদিন অর্থাৎ ১৮২৬ সালের ৪ জুলাই মারা যান। ওই বছর ছিল স্বাধীনতার ৫০ বছর। এছাড়া অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জনক জেমস মনরো, যিনি পরবর্তী সময় দেশটির প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন, তিনি মারা যান ১৮৩১ সালের ৪ জুলাই।