ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৪৯ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের নির্দেশনা দিচ্ছেন খালেদা জিয়া

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

আন্দোলনের নামে বিএনপি জামায়াত চক্র সারা দেশে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।
তিনি বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন কি ভাবে কুমিল্লায় সাতজন নিরীহ বাসযাত্রীকে পেট্রোলবোমা দিয়ে পুড়িয়ে মারা হয়েছে। এটা আন্দোলন নয়, সন্ত্রাস। খালেদা জিয়াকে এখন সবাই জঙ্গিবাদী ও সন্ত্রাসী নেত্রী হিসেবে ভাবে।’
হানিফ আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের ওয়াসা ভবনের সামনে জাতীয় শ্রমিক লীগ আয়োজিত প্রতিবাদে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। ২০ দলের ডাকা হরতাল-অবরোধের প্রতিবাদে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
সংগঠনের কার্যকরি সভাপতি ফজলুল হক মন্টুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান প্রমুখ।
মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, মানুষ হত্যার দায়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে জনগণই বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাবে। ক্ষমতায় এবং ক্ষমতার বাইরে থেকেও সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নিয়েই রাজনীতি করেছেন খালেদা জিয়া। দেশকে একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে পরিণত করতে বিএনপি মিশনে নেমেছে। তবে জনগণ তাদের সে উদ্দেশ্য সফল হতে দেবে না।
সহিংস কর্মকান্ড থেকে সরে আসতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, জঙ্গি সংগঠন আইএস ও আল কায়েদার মতো বিএনপি-জামায়াত মানুষকে জিম্মি করে যে সহিংসতায় নেমেছে তার জবাব খালেদা জিয়াকে দিতে হবে। মানুষ হত্যার দায়ে জনগণ তাকে বিচারের মুখোমুখিও করবে।
বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, পত্রিকায় পড়লাম আপনার ছেলে কোকো রহমানের সন্তানদের পরীক্ষার জন্য মালয়েশিয়া পাঠিয়ে দিয়েছেন। আপনার নাতির ভবিষ্যৎ নিয়ে আপনি বিচলিত, অথচ এ দেশের লাখ লাখ শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে পারছে না-এ নিয়ে আপনার কোন চিন্তা নেই। এতে আপনার লজ্জা হওয়া উচিত।
সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইউটিউবে প্রকাশিত বেগম খালেদা জিয়ার একটি ফোনালাপের বিষয়ে হানিফ বলেন, তার ফোনলাপেই প্রমাণিত হয় -খালেদা জিয়া আগেও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এখনো নির্দেশনা দিচ্ছেন।