ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:০০ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘সন্ত্রাসীদের মূলোৎপাটনে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে’- রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ সন্ত্রাসী ও তাদের মদদদাতাদের মূলোৎপাটনে দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হতে জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি রাজধানীর হলি আর্টিজান ক্যাফে বন্ধু প্রতিম বিদেশী নাগরিকদের হত্যা এবং ঈদ-উল- ফিতরের দিনে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের নিকটে হামলার উল্লেখ করে বলেন, এ ঘটনায় দেশবাসী মর্মাহত এবং কষ্ট পেয়েছে।

রাষ্ট্রপতি আজ রাষ্ট্রপতির গার্ড রেজিমেন্টের (পিজিআর) ৪১তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী উপলক্ষে ঢাকা সেনানিবাসে পিজিআর সদর দফতরে শহীদ ক্যাপ্টেন হাফিজ হলে রাষ্ট্রপতির গার্ড রেজিমেন্টের দরবারে ভাষণ প্রদানকালে এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বাঙ্গালীরা একটি শান্তিপ্রিয় জাতি এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বাঙ্গালী সংস্কৃতির একটি ঐতিহ্য। ফলে দেশবাসী এ ধরনের সন্ত্রাসী ঘটনাকে কখনো সমর্থন দেবে না।

তিনি বলেন, এই দেশের জনগণ কখনো এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সহ্য করবে না।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিকাশে সন্ত্রাসবাদেরও পরিবর্তন আসছে। এ কারণে পিজিআর সদস্যদের জন্য সময়োপযোগী ও মানসম্পন্ন প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করতে হবে, যাতে তারা যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারে।

রাষ্ট্রপতি দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে চেইন অব কমান্ড বজায় রাখতে পিজিআর সদস্যদের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, পিজিআর’র প্রতিটি সদস্যকে হতে হবে আরো দক্ষ ও তাদের দায়িত্ব পালনে সক্ষম।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ এখন একটি বৈশ্বিক সমস্যা এবং এ ধরনের কর্মকান্ড সারা বিশ্বে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি আশা করছি, আপনারা আপনাদের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে চেইন অব কমান্ডের প্রতি অনুগত থাকবেন এবং এতে রেজিমেন্টের দায়িত্ব পালনে সহায়ক হবে।

রাষ্ট্রপতি শহীদের এবং পিজিআর’র নিহত সৈন্যদের আত্মার শান্তি কামনা করে বলেন, তারা তাদের আত্মত্যাগের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে।
রাষ্ট্রপতি পরে পরিদর্শন বইতে স্বাক্ষর করেন এবং পিজিআর কর্মকর্তাদের সাথে ফটোসেশনে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মুহম্মদ শফিউল হক, পিজিআর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জাহাঙ্গির হারুন এবং উচ্চপদস্থ সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।