Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:২৯ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

সতর্ক করনের বিরুদ্ধে না গিয়ে আইএসকে মোকাবেলায় সরকারকে মনযোগ দিতে বলল ‘সাইট’

বাংলাদেশে দুই বিদেশী হত্যা এবং তাজিয়া মিছিলে হামলার ঘটনায় জঙ্গিসংগঠন আইএসের দাবির বিষয়ে অনড় রয়েছে জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী বিতর্কিত সংস্থা ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ’।
একই সঙ্গে সাইটের ‘সুনাম ক্ষুণ্নের’ পথ থেকে সরে এসে ‘সত্যের মুখোমুখি’ হতে এবং ‘আসল শত্রু’ আইএসের বিরুদ্ধে সরকারকে মনযোগী হতে বলেছে সংস্থাটি।
মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এ সব কথা বলা হয়।
এতে দাবি করা হয়, ‘এসব হামলার ঘটনায় আইএসের সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি বাংলাদেশ সরকার তীব্রভাবে অস্বীকার করে আসছে। আইএসের দাবির বিষয়টি আড়ালে রাখার চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে সরকার এখন সাইটের সুনাম ক্ষুণ্নের চেষ্টা করছে।’
আইএসের দায় স্বীকারের বিষয়ে ‘আগের অবস্থানেই’ রয়েছে জানিয়ে সাইট বলেছে, ‘বিভিন্নভাবে যাচাই করে নিশ্চিত হয়েই তারা ওই তথ্য প্রকাশ করেছে। আইএসেএর মিডিয়া চ্যানেলেও দায় স্বীকারের বিষয়টি এসেছে।’
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘যারা সতর্ক করছে তাদের বিরুদ্ধে না গিয়ে সত্যের মুখোমুখি হলে এবং আসল শত্রু আইএসকে মোকাবেলায় মনযোগ দিলেই বাংলাদেশ সরকার বরং বেশি সুফল পাবে।’
এতে আরও বলা হয়, ‘সরকারের অস্বীকার এবং সাইটের সুনাম নষ্টের চেষ্টায় বাস্তবতা বদলানো যাবে না। জিহাদি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণে সাইট সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে যে সুনাম সাইট অর্জন করেছে, তা নষ্টের চেষ্টাতেও কোনো ফল আসবে না।’
উল্লেখ্য, গত ২৮ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ইতালির নাগরিক চেজারে তাভেল্লা ও ৩ অক্টোবর রংপুরে জাপানি নাগরিক কুনিও হোশিকে গুলি করে হত্যা করা হয়। দুই হত্যাকাণ্ডের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে আইএসের ‘দায় স্বীকারের’ খবর দেয় সাইট।
এরপর গত ২৩ অক্টোবর পুরান ঢাকার হোসেনি দালানে আশুরার তাজিয়া মিছিলে প্রস্তুতির সময় বোমা হামলা হয়। ওই ঘটনার দায়ও আইএস স্বীকার করেছে বলে সাইট দাবি করে।
তবে বাংলাদেশ সরকার বলে আসছে, এসব ঘটনার সঙ্গে আইএসের সংশ্লিষ্টতা বা দায় স্বীকারের দাবির কোনো ভিত্তি গোয়েন্দারা খুঁজে পাননি। আইএসের নামে যে টুইট করা হয়েছে তা এসেছে বাংলাদেশ থেকেই।