ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৪১ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সঙ্গী বহন নিয়ে ‘প্রজ্ঞাপন-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর’ বক্তব্য পরস্পরবিরোধী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মোটরসাইকেলে তিনজন চলাফেরা করতে না দেয়ার আজকের ঘোষণা প্রকান্তরে পূর্বেকার জারিকৃত প্রজ্ঞাপনের কার্যকারিতা হারাল কি-না অর্থাৎ দুইজন চলার বৈধতা দিল কি-না বুঝা যাচ্ছে না। যেহেতু, সারা দেশে মোটর সাইকেলে চালক ব্যতিত অন্য কোনো যাত্রী বা সঙ্গী বহন গত বছরের এক প্রজ্ঞাপনে নিষিদ্ধ করা আছে। যেহেতু চালক ব্যতিত অন্য কোনো সঙ্গী থাকতে পারবেনা কথাটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন নি,  এমতাবস্থায় সড়ক পরিবহনের প্রজ্ঞাপনের নির্দেশনা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য পরস্পরবিরোধী বলে প্রতিয়মান হচ্ছে।

উল্লেখ্য ২০১৫ সালের ২২ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার মোটরসাইকেলে চালক ছাড়া অন্য আরোহী বহন নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ দেয়া না পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে বলে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এতে বলা হয়, লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে সাম্প্রতিককালে কিছু দুর্বৃত্ত মোটর সাইকেল ব্যবহার করে বিভিন্ন যানবাহনে বোমা হামলাসহ ব্যাপক সহিংসত ও নাশকতা চালাচ্ছে। এ ধরনের নাশকতা ও সহিংসতা রোধে এবং জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ১৯৮৩ সালের মোটর ভেহিকেলস অধ্যাদেশ এর ৮৮ ধারার ক্ষমতাবলে পুনরাদেশ না দেয়া পর্যন্ত সরকার সারা দেশে মোটর সাইকেলে চালক ব্যতিত অন্য কোনো যাত্রী বা সঙ্গী বহন নিষিদ্ধ করল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আজ বলেছেন, এখন থেকে এক মোটরসাইকেলে যাতে তিনজন চলাফেরা করতে না পারে তা নিশ্চিত করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেকোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এখন থেকে মোটরসাইকেলে তিনজন চলা যাবে না। তিন জন চললে বাধা দেয়া হবে, লাইসেন্স চেক করা হবে। তিনি বলেন, এসপিপত্নী মিতু হত্যার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি এর মধ্যেই আমরা উদ্ধার করত সক্ষম হয়েছি। পুলিশ সদস্যদের মনোবল ভেঙে দিতেই জঙ্গিরা এই ধরনের হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে। পুলিশ কর্মকর্তাদের পরিবারের নিরাপত্তার বিষয়টি আমরা দেখব।

প্রসঙ্গত রবিবার সকালে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে জিইসি মোড়ে যাওয়ার সময় খুন হন এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু।