ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৪৮ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সুরেন্দ্র কুমার সিনহা - আমির হোসেন আমু
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা - শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু

“সংসদই যদি অবৈধ হয় ‘প্রধান বিচারপতি’ নিয়োগও অবৈধ” – শিল্পমন্ত্রী

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে উদ্দেশ্য করে তাঁর নিয়োগের বৈধতা প্রশ্নে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, সংসদ অবৈধ হলে প্রধান বিচারপতি হিসেবে আপনার নিয়োগও অবৈধ।

আজ শনিবার দুপুরে ঝালকাঠিতে আন্তর্জাতিক যুব দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর্যবেক্ষণের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন না হলেও আওয়ামী লীগ এই দেশে মাথা উঁচু করে থাকতো। কিন্তু দেশ স্বাধীন না হলে আপনি প্রধান বিচারপতি হতে পারতেন না। তাই মনে রাখতে হবে বর্তমান সংসদ অবৈধ হলে প্রধান বিচারপতি হিসেবে আপনার নিয়োগও অবৈধ।

আমির হোসেন আমু বলেন, বাংলাদেশ যাতে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে, সে জন্য বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে। সেই থেকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আজও নানা ষড়যন্ত্র চলছে। শেখ হাসিনা সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোন অপশক্তিকে এ দেশের মানুষ প্রশ্রয় দেয়নি, আগামীতেও দিবে না। জনগণই সমস্ত ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙা জবাব দেবে।

সংবিধান অনুযায়ী এ দেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ভারতে কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় নির্বাচন হয়েছে, আমেরিকায় ওবামা প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্থায় তাঁর নেতৃত্বে নির্বাচন হয়েছে, বাংলাদেশেও সেইভাবে নির্বাচন হবে। এর বাইরে যাওয়ার ক্ষমতা কারো নেই। কোন ষড়যন্ত্র কোন চক্রান্ত তা ব্যহত করতে পারবে না।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশকে পিছিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল মন্তব্য করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখেছিলেন একটি সুখি ও সমৃদ্ধি দেশ গড়ে তোলার। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাকে হত্যার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশকে পিছিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। ভাগ্যক্রমে শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন বলেই আজ বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পেরেছে। তিনি বেঁচে আছেন বলেই আজ উন্নয়নের জোয়ার বইছে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে রূপান্তরিত হবে।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু

ঝালকাঠিতে আন্তর্জাতিক যুব দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা দিচ্ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. মিজানুর রহমান।

পরে শিল্পমন্ত্রী যুব উন্নয়নের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৪৩ যুবকের মধ্যে ঋণের ২৩ লাখ ৩০ হাজার টাকার চেক বিতরণ করেন।