ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৪৮ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনা

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টকে ঢাকায় লাল গালিচা অভ্যর্থনা

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনা তিনদিনের সরকারি সফরে আজ এখানে পৌঁছালে তাকে লাল গালিচা অভ্যর্থনা জানানো হয়।

রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ এবং সিনিয়র মন্ত্রীবৃন্দ শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টকে ঊষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। শ্রীলংকার নেতা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছালে ভিভিআইপিদের রাষ্ট্রীয় সম্মাননার অংশ হিসেবে ২১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে তাকে অভিবাদন জানানো হয়।

শ্রীলংকান এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ বিমানে এখানে পৌঁছানোর পরে দুই শিশু ফুলের তোড়া দিয়ে তাকে স্বাগত জানায়।

প্রেসিডেন্টের সফরসঙ্গী হিসেবে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী এবং ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ রয়েছেন।

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টকে বহনকারী বিমানটি বেলা সাড়ে এগারটায় বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনা

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনা

এসময় অর্থমন্ত্রী এ এম এ মুহিত, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে ছিলেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টকে অস্থায়ী মঞ্চে নিয়ে যান। সেখানে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর একটি যৌথ চৌকষ দল তাদের গার্ড-অব অনার প্রদান করে।

বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টকে প্যান প্যাসেফিক সেনারগাঁও হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। সফরকালে তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন।

সফরসূচি অনুযায়ী সিরিসেনা আজ বিকেলে তার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করবেন।

বিকেলে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ১৯৭১ সালের বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন।

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর পরিদর্শন করবেন এবং সেখানে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তাঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী আজ সন্ধ্যায় শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

এরআগে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহামদ নাসিম তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

আগামীকাল সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার আনুষ্ঠানিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকের পরে কয়েকটি প্রধান খাত সংশ্লিষ্ট অনেকগুলো দ্বিপক্ষীয় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হবে।

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, এমসিসিআই এবং বিআইডিএ’র আয়োজনে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা যৌথ ব্যবসায়িক সংলাপে যোগ দেবেন।

আগামীকাল সন্ধ্যায় শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন, সেখানে তিনি রাষ্ট্রপতির দেয়া নৈশভোজে অংশ নেবেন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। রীতি অনুযায়ী তিনি রাষ্ট্রপতির বাসভবনে ক্রেডেনসিয়াল হলে রক্ষিত পরিদর্শক বইয়ে স্বাক্ষর করবেন।

২০১৫ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পর সিরিসেনার এটিই প্রথম বাংলাদেশ সফর, তবে কর্মকর্তারা জানান, সিরিসেনা এরআগে শ্রীলংকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে বাংলাদেশ সফর করেছেন।

তিনদিনের সফর শেষে শনিবার দুপুর ১টায় কলম্বোর উদ্দেশে তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাকে বিমানবন্দরে বিদায় জানাবেন।