ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৫৪ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘শ্রমিক কাঁদবে, মালিক হাসবে- এর অবসান দরকার’

‘শ্রমিক কাঁদবে, মালিক হাসবে- এ অবস্থার অবসান করতেই হবে’। মে দিবসে এ অঙ্গীকারকেই সামনে এনেছেন তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

রোববার মে দিবসের সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে প্রধান ডাকঘরের সামনে থেকে জাতীয় শ্রমিক জোটের লাল পতাকা সমাবেশ ও মিছিল উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

ঢাকার বিভিন্ন শিল্পকারখানা থেকে আগত সহস্র শ্রমিকের উদ্দেশ্যে হাসানুল হক ইনু বলেন, উন্নয়নকে অর্থবহ করতে, মানবিক সমাজ নির্মাণ করে দেশকে আরো এগিয়ে নিতে, শ্রমিক কাঁদবে, মালিক হাসবে- এ অবস্থার অবসান দরকার।

‘শ্রম কখনো সস্তা নয়, শ্রমিক দয়ার পাত্র নয়, তাদের ন্যায্য মজুরি দিতেই হবে’, শ্লোগান তুলে এই মুক্তিযোদ্ধা বলেন, কল-কারখানা ও সমাজে শান্তি বজায় রাখতে শ্রমিকের ন্যায্য পাওনা বুঝিয়ে দিতেই হবে।

‘আর এ অধিকার আদায়ের জন্য ট্রেড ইউনিয়ন ও এমন দলের সাথে ঐক্য দরকার, যে দল শ্রমিকের পাশে দাঁড়াবে, সংসদে, মন্ত্রিসভায় শ্রমিকের জন্য দাবি তুলবে’, বলেন তথ্যমন্ত্রী।

মহান মে দিবসে সমাজতন্ত্রের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে এসময় জাসদ সভাপতি ইনু বলেন, ‘বৈষম্য অবসান করতে সমাজতন্ত্রকে সংবিধানের পাতা থেকে জীবনের পাতায় আনতে হবে। সেই সাথে মানুষে মানুষে বিভেদ সৃষ্টিকারী জঙ্গীবাদ নির্মূল করতে হবে।’

জাতীয় শ্রমিক জোটের সভাপতি শিরিন আখতার এমপির সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি এডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, শ্রমিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নাঈমুল আহসান জুয়েল ও শ্রমিক সংগঠন ও জাসদ নেতৃবৃন্দ।

এদিন দুপুরে রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে বালাদেশ টেক্সটাইল এন্ড টেকনোলোজিস্ট এসোসিয়েশন সভাপতি রথীন চাকীর সভাপতিত্বে আয়োজিত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার্স কনভেনশনে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের অর্থনীতির অন্যতম প্রধান স্তম্ভ পোশাক ও বস্ত্রশিল্পের উন্নয়নে এখাতে শ্রমিক-কর্মচারী নিয়োগে বিধিবদ্ধ প্রথা, গবেষণা ও প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই।’