Press "Enter" to skip to content

“শোভন-রাব্বানীর অবস্থা খোকন-শ্যামলেরও”

পদ পাওয়ার পর প্রথম কর্মসূচিতেই দেড় ঘণ্টা দেরিতে উপস্থিত হন ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল। ছাত্রলীগের সদ্য পদ হারানো শোভন ও রাব্বানীও নাকি এমনটাই করতেন।

প্রেসবিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী শনিবার সকাল ১০টায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে যাওয়ার কথা ছিল তাদের। কিন্তু তারা নির্ধারিত সময়ের দেড় ঘণ্টা পর সেখানে পৌঁছান। ছাত্রদলের দুই নেতা সময়মতো উপস্থিত না হলেও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সিনিযর নেতারা ঠিক সময়ে উপস্থিত হয়েছিলেন।

মির্জা ফখরুল, বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, যুবদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ বিএনপি নেতারা এবং বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী খোকন আর শ্যামলের জন্য দেড় ঘণ্টা ঘণ্টা অপেক্ষা করেন। এ সময় নেতারা বিরক্তি প্রকাশ করেন। পরে তারা এলে বেলা সাড়ে ১১টায় মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এদিকে ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাসময়ে না আসায় তাদের তিরস্কার করেন দলের সিনিয়র কয়েকজন নেতা। তারা বলেন, এদের অবস্থা শুরু থেকে দেখা যাচ্ছে ছাত্রলীগের পদ হারানো সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর মতো। তারাও নাকি নিজেদের অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতাদের দাওয়াত দিয়ে পরে উপস্থিত হতেন। এখন দেখি ছাত্রদলের অবস্থাও একই।

শেয়ার অপশন: