Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:৫৬ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

শেয়ার ব্যবসা করে স্কুলছাত্র ৫৫৬ কোটি টাকার মালিক!

নাম মোহাম্মদ ইসলাম। বয়স এখনো ১৮ ছোঁয়নি। থাকে আমেরিকায়। কিন্তু তার মা-বাবা জন্মসূত্রে বাঙালি।এখনো স্কুলের গণ্ডি পার করেনি। কিন্তু এরই মধ্যে বিলিয়নিয়ার! আর তাই নিউ ইয়র্ক ম্যাগাজিনের পাতায় জায়গা করে নিয়েছে এই কিশোর।কী আশ্চর্য হচ্ছেন, হওয়ারই কথা। যেখানে ২৮-৩০ বছরে পড়াশোনার পাঠ চুকিয়ে চাকরি-বাকবির জন্য হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়াতে হয়। সেখানে ১৭ বছর বয়সেই বিলিয়নিয়ার। এক-দুই নয়, প্রায় পাঁচ শ’ ৫৬ কোটি ৪৮ লাখ টাকার মালিক হওয়া চাট্টিখানি কথা নয়।
হ্যাঁ, কিশোর বয়সেই মেধা এবং সময়কে কাজে লাগিয়ে এ অবস্থানে এসেছে মোহাম্মদ ইসলাম। সে নিউ ইয়র্কের স্টুভিসেন্ট হাইস্কুলে পড়াশোনা করছে।সে ৯ বছর বয়স থেকেই উপার্জন শুরু করে। স্কুলে টিফিনের ফাঁকে শেয়ার ব্যবসা করে লাখপতি থেকে ধীরে ধীরে কোটিপতি বনে যায়।কিন্তু এত কাড়ি কাড়ি টাকা দিয়ে মোহাম্মদ ইসলাম করে কী?যদি ভাবেন কম বয়সে টাকা আয় করে ইচ্ছেমতো উড়াচ্ছে, তাহলে ভুল করবেন। কারণ সে একটি বিএমডব্লিউ গাড়ির মালিক। তবে লাইসেন্স না পাওয়ায় গাড়িটা পড়ে আছে। আর থাকছে নিউ ইয়র্কের কুইন্সে নিজের অ্যাপার্টমেন্টে।


আর এর বাইরে মাঝে মাঝে বন্ধুদের পেছনে কিছু টাকা খরচ করছে। মানে বন্ধুদের নামী-দামি রেস্টুরেন্টে পেট পুরে খাওয়াচ্ছে আর কি। সে ৪০০ ডলারের নোনা পানি, চাটনিতে মাখানো সমুদ্রের মাছের ডিম দিয়ে রাতের খাবার খাওয়ানোর জন্য বন্ধুদের রেস্টুরেন্টে নিয়ে যাচ্ছে। যেখানে এক একটি খাবারে দাম পড়ে বাংলাদেশী ২৫-৩০ হাজার টাকা। তবুও বন্ধুদের খাওয়াতে কাপর্ণ্য করে না সে। বিএমডব্লিউ গাড়ি চালাচ্ছে। নিশ্চিতভাবে সে তার অভিবাসী বাবা-মাকে গর্বিত করেছে।নিউ ইয়র্ক ম্যাগাজিন ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘রিজন টু লাভ নিউ ইয়র্ক ইস্যু’তে মোহাম্মদ ইসলামের সাক্ষাৎকার নিয়েছে। সেখানে তাকে টাকাপয়সার পরিমাণ জিজ্ঞেস করা হলে মুখ খুলতে চায়নি। তবে ইঙ্গিত দিয়েছে ‘আটটি অঙ্কের’ মালিক সে।