Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:৩৪ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ফাইল ফটো

‘শেখ হাসিনা সম্পর্কে’ আদালতে মিথ্যা বলেছে খালেদা জিয়া

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আদালতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে মিথ্যাচার করেছেন।

মন্ত্রী বলেন, তিনি আদালতে এমন কিছু বিষয়ের অবতারণা করেছেন, যা রাজনৈতিক বক্তব্য এবং যা দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা মাত্র।

ওবায়দুল কাদের আজ জেলার কবিরহাট উপজেলায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপির বাসভবনে কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত মহিলা সমাবেশে যোগদানের প্রাক্কালে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে এ কথা বলেন।

এসময় জেলা প্রশাসক মাহবুবুল আলম তালুকদার ও পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সেনা সমর্থিত তত্তাবধায়ক সরকারের সময় তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অসম্মানজনকভাবে আদালতে নেওয়া হয়েছে। ওই সময়ের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধাসহ সাব-জেল তৈরী করে সেখানে নেওয়া হয়। অথচ খালেদা জিয়া আদালতে বলেছেন যে শেখ হাসিনাকে কখনো আদালতে যেতে হয়নি।

তিনি বলেন, ত্রাণ দিতে গিয়ে ত্রাণ সরবরাহের পথ রুদ্ধ করলে ৬ লাখ মানুষ কষ্ট পাবে। ত্রাণ দেওয়ার নামে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম এবং চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার মহাসড়কে যাতায়াতের সময় রাস্তায় রাস্তায় সভা করে ত্রাণ সরবরাহে বিশ্ঙ্খৃলা সৃষ্টি না করার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ত্রাণের নাম করে তিন দিন ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক অচল করে রাখলে ত্রাণ সরবরাহের পথ বন্ধ হয়ে যাবে। তাদের এ কর্মসূচি মানবিক হলেও এর উদ্দেশ্য রাজনৈতিক।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের শত শত মানুষকে আপনি পুড়িয়ে মারার কর্মসূচি দিয়েছিলেন। কান্নার রোল এখনো বাংলার আকাশে-বাতাসে শুনতে পাওয়া যায়। অথচ আদালতে গিয়ে মায়াকান্না করে মানুষের সহানুভূতি পাওয়ার চেষ্টা করছেন। এদিকে পুত্রহারা মাকে সান্ত¡না দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে নিষ্ঠুরতার মুখোমুখি হয়েছেন, তা কোনো সভ্য সমাজে খুঁজে পাওয়া যাবে না।