Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:৫৬ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘শেখ হাসিনা ভক্ত খায়রুলের শেষ ইচ্ছা’

help1

ভাল বলি আর খারাপ বলি শেখ হাসিনা-খালেদা জিয়ার লাখ লাখ-কোটি কোটি ভক্ত আছে, যাকে বলে অন্ধ ভক্ত। কেউ মানুক আর না-ই মানুক এটাই বাস্তবতা। অনেক দল আছে যারা ডাকলেও টাকা দিয়েও দুই-চারশত লোক হাজির করতে পারবে কি-না তা নিয়ে আমাদের যথেষ্ট সন্দেহ আছে, কিন্তু হাসিনা-খালেদা কোন কর্মসূচি ঘোষণা করলে কিংবা সমস্যায় পড়লেই দেখতে পেয়েছি সেচ্ছায় কিভাবে এগিয়ে আসে জনতা, এটাই হচ্ছে সাধারণ মানুষের তাদের প্রতি আন্তরিক ভালবাসার নিদর্শন। এটা অর্জন করতে হয়েছে সততা, ত্যাগ, দেশ প্রেমের মাধ্যমে। তাই তাদের প্রতি আছে সাধারণ মানুষের এই প্রচন্ড ভালবাসা। নেত্রী হিসাবে এটাই তাদের সম্বল, তারা কর্মী-সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় সারা জীবন বেঁচে থাকবেন। 

শেখ হাসিনার প্রতি ভালোবাসার একটি নমুনা খুঁজে পেয়েছি ফেসবুকে। আর সে কারণেই এতো কথা বললাম। নমুনাটা হল ‘খায়রুল বাশার’ যিনি নিজেকে আওয়ামী লীগের কর্মী দাবি করছেন, ফেসবুকে খায়রুলের যতগুলো ছবি আছে সে গুলোতে তার নিজের বুকে ট্র্যাটু করা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি। শেখ হাসিনাকে কতোটা ভালোবাসে-মানুষ কতোটা ভক্ত হতে পারে তার উদাহরণ খায়রুল বাশার। তিনি অসুস্থ,  তিনি নিজেকে মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে মনে করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তার কোন চাওয়া-পাওয়া নেই।  তবে তার একটাই ইচ্ছে তা হল মৃত্যুর আগে ‘শেখ হাসিনার সাথে দেখা করা’ খায়রুল তার ফেসবুকে অনেক দিন যাবত শুধু একই ইচ্ছার কথা জানিয়ে স্ট্যাটাস লিখে যাচ্ছেন। জানিনা তার ইচ্ছেটা পূর্ণ হবে কিনা তবুও তার এই মানবিক আবেদন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিগোচরে নেয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব জনাব ইহসানুল করিম এর সদয় সক্রিয় দৃষ্টি কামনা করছি

help

খায়রুল বাশার ও তার কন্যা

 শেখ হাসিনা ভক্ত  খায়রুলের ফেসবুক স্ট্যাটাসটি  নিম্নে তুলে ধরা হলঃ   
 
আমি আমার মা সমতুল্য জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করলে কি কোটি কোটি টাকার মালিক হয়ে যাব? নাকি সংসদ সদস্য হয়ে যাব? নাকি বড় নেতা হয়ে যাব? আমার একটিরও হবার ইচ্ছা নেই। প্রিয় সাংবাদিক ভাইয়েরা ও সমাজের বিবেকবান বন্ধুরা আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ রইল যে, আমি বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালবেসে নিজের আবেককে ধরে রাখতে না পেরে আমার বুকে হাজার হাজার সুঁইয়ের আঘাত সয়েও স্থায়ীভাবে ট্র্যাটু করেছি যা কোনদিন মুছে যাবে না। আমি মৃত্যুর সাথে পাঁন্জা লড়ছি, বুকে আজ কয়েকদিন থেকে প্রচন্ড ব্যাথা করছে, যে কোন মুহূর্তে আমার সময় শেষ হয়ে যেতে পারে। আমি কোনদিন দলীয় পরিচয়ে কোন প্রকার সুবিধা চাইনি আমি এটা চ্যালেন্জ করে বলতে পারি। আমার শেষ ইচ্ছা আমি দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করতে চাই। আমিও সবার মত বাঁচতে চাই কিন্তু আমি আর চিকিৎসার খরচ বহন করতে পারছি না। আমি জানি আমার আর চিকিৎসাও হবে না। (কেউ মনে কিছু নেবেন না, আমি কারোর কাছে আমার চিকিৎসার জন্য সাহায্য বা করুনা চাই না)। যদি কেউ পারেন আমার শেষ ইচ্ছাটা পূরন করতে সাহায্য করতে তাহলে আমার পুরো পরিবার কৃতঙ্গ থাকবে। আল্লাহকে স্বাক্ষী রেখে বলছি চিকিৎসার জন্য যাবার ভাড়ার টাকাটা পর্যন্ত নেই। আমি সত্যি বলছি। আমার ছোট্র নিষ্পাপ আট বছরের মেয়েটটা শুধু কেঁদে যাচ্ছে। আমার সহধর্মিনী ২০১৪ উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেছে। আমি আমার পুরো পরিবার আওয়ামী লীগ পরিবারের। আমি আবারো সবার কাছে অনুরোধ করছি আমাকে কেউ করুনা না করে বন্ধু বা ভাই ভেবে আমার ইচ্ছাটা পূরনের জন্য লেখাটি প্রয়োজনে আপনাদের মত করে প্রচার করুন। আমার অবুঝ মেয়েটার জন্য কিছু করে যেতে পারলাম না। আমার মেয়েটাও আওয়ামী লীগ পাগল। আমার ফোন নাম্বার ০১৭৫৬৯২৯৯২৮ অথবা ০১৯১৭৭১৩৭৬৬। আমার কষ্ট হয় এইভেবে যে, অপশক্তিরা আমাকে বাজে কমেন্টস করে আর আমার সহযোদ্ধা বন্ধুরা চুপ করে বসে থাকে। সহযোদ্ধা বন্ধুদের কমেন্টস বা লাইক দিয়ে কি কোটিপতি হয়ে যাব?

(বিঃদ্রঃ অনেকে মনে করছেন আমি টাকার সাহায্য চাই, মাফ করবেন না খেয়ে মারা যেতে রাজি আছি, আমি এটা চাই না। টাকা দিয়ে কি হবে, ভালবাসা টাই কাম্য )

help2

খায়রুল তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে মোবাইল নাম্বার দিলেও বিস্তারিত তথ্য দেয়নি। তাই খায়রুলের সাথে মোবাইলে শুক্রবার রাতে শীর্ষ মিডিয়ার পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান যে, বিগত ৩/৪ বছর যাবত হার্ট ও ডায়াবেটিকস জনিত রোগে আক্রান্ত তিনি। তার বয়স মাত্র ৩৩ বছর। তার বাবার নামঃ মৃত আব্দুল হাকিম সরকার, মায়ের নামঃ কুকি হাকিম,  জাতীয় পরিচয়পত্র নং-১৯৮৪৮৯১৯০৬৩০০০০১১, তার স্ত্রীর নামঃ শাহানাতুল আরেফিন সুমি,  গ্রামঃ নাপিতের চর, পোঃ গাইবান্ধা, থানাঃ ইসলামপুর, জেলাঃ জামালপুর। খায়রুলের ৮ বছর বয়সের যমজ একটি ছেলে ও একটি মেয়ে আছে, তারা দ্বিতীয় শ্রেনিতে পড়াশুনা করছে। খায়রুল এক সময় চিংড়ির ঘেরের ব্যবসা করতেন। বর্তমানে তিনি নিঃস্ব। খায়রুল বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন, যদিও চিকিৎসা করাতে পারছেন না। তার স্ত্রী শেরপুরের শ্রীবরদী থেকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেছিলেন। তিনি তার মেয়ের নাম ও স্কুলের নাম নিরাপত্তাজনিত কারণে দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে দুঃখ করে বলেন, আমার কোন শত্রু নেই তবু কে বা কাহারা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি বুকে ধারণ করায় মোবাইল ফোনে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। খায়রুলের শুধু একটাই ইচ্ছা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করা, কোন কিছু চাওয়া পাওয়ার জন্য নয়। খায়রুলের ফেসবুক একাউন্ট দেখলেই বুঝা যায় সে কতোটা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ভক্ত। অসুস্থ খায়রুলের মনের আশা পূর্ণ হবে তো?

খায়রুল বাশারের ফেসবুক লিঙ্কঃ     https://web.facebook.com/khairul.bashar.9210