Press "Enter" to skip to content

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলাকারী ১৫ বছর পরে গ্রেফতার

বিরোধীদলীয় নেত্রী থাকাকালীন শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলার প্রধান আসামি খালিদ মঞ্জুরুল রোমেলকে প্রায় ১৫ বছর পরে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরার কলারোয়া থানায় এক মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে দেখতে যান তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হাসপাতাল থেকে তাকে দেখে গাড়ির বহর নিয়ে শেখ হাসিনা যশোরে যাচ্ছিলেন। গাড়ির বহরটি সাতক্ষীরা-যশোর সড়কের কলারোয়া থানা সদরের বিএনপি অফিসের সামনে পৌঁছালে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আসামি হাবিবুর রহমান ও অন্যান্য আসামীরা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়িবহরে গুলি চালায়। একই সঙ্গে তাকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালানো হয়। অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান শেখ হাসিনা। ওই সময় সাবেক এমপি মুজিবুর রহমান ও কয়েকজন সাংবাদিক আহত হন।

এ ঘটনায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসলেম উদ্দীন বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় পুলিশ। ওই মামলার প্রধান আসামি ছিলেন খালিদ মঞ্জুরুল রোমেল।

শুক্রবার ভোর রাতে তাকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার নলকা ইউনিয়নের পাঁচলিয়া বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামি খালিদ মঞ্জুরুল রোমেল (৩৮) সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার কাদই বাদলা গ্রামের মৃত এম এ গোফরানের ছেলে।

শুক্রবার বিকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব-১২ সিরাজগঞ্জ ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর সাফায়াত আহম্মদ সুমন জানান, তার নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পাঁচলিয়া বাজার থেকে ওই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত মঞ্জুরুল নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে সাতক্ষীরার কলারোয়া থানায় বিস্ফোরকদ্রব্যসহ একাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে সলঙ্গা থানায় পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার অপশন:
Don`t copy text!