ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:০৬ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

“শিশু রবিউল হত্যাকারীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ”

বরগুনায় আলোচিত শিশু রবিউল হত্যা মামলার প্রধান আসামি মিরাজুল ইসলামের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।মঙ্গলবার দুপুর পৌনে ১২টায় বরগুনা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবু তাহের এ রায় দেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার শিশু রবিউল হত্যা মামলার রায় ঘোষণার কথা ছিল। তবে লোডশেডিংয়ের কারণে রায় প্রস্তুত না হওয়ায় তা পিছিয়ে দেয়া হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে বরগুনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. আবু তাহের আসামি মিরাজের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

এর আগে ১৯ মে বিচারক এই মামলার যুক্তি-তর্ক শেষে ২৬ মে রায়ের দিন ধার্য করেছিলেন।

আলোচিত এই শিশুহত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হবে-এমন খবর জানতে পেরে বরগুনা জেলা জজ আদালতের সামনে বিপুলসংখ্যক উৎসুক মানুষ জড়ো হয়। আদালতের বাইরে নেয়া হয় অতিরিক্ত নিরাপত্তাব্যবস্থা।

গত বছরের ৩ আগস্ট রাতে মাছ চুরির অভিযোগে বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের ছোট আমখোলা গ্রামের ১১ বছরের শিশু রবিউলকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

পরে তার মরদেহ স্থানীয় লকরার খালে ফেলে রাখা হয়। পরের দিন ৪ আগস্ট বিকালে স্থানীয় লকরার খাল থেকে পুলিশ রবিউলের মরদেহ উদ্ধার করে। রবিউল স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

এ ঘটনায় ৫ আগস্ট শিশু রবিউলের বাবা দুলাল মৃধা বাদী হয়ে তালতলী থানায় অভিযুক্ত মিরাজুল ইসলামসহ চারজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। ওই দিনই মিরাজকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এরপর ৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার বরগুনার আমতলী উপজেলার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম বৈজয়ন্ত বিশ্বাসের আদালতে হাজির করা হলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন আসামি মিরাজ। এরপর শুধু মিরাজের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।