ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:৪৫ ঢাকা, বুধবার  ১২ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

শিশু কেন থানা হাজতে ? কারণ জানাতে আদালতের রুল জারী

মহেশপুর থানা হাজতে ১১ মাসের শিশু আলিফ ওরফে রয়েলকে তার মায়ের সাথে ১৯ ঘন্টার হাজতবাসের কারণ জানতে চেয়ে স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারী করেছেন ঝিনাইদহের চিফ জুডিশিয়াল ম্যজিষ্ট্রেট জাকির হোসেন।

আদালতের আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে গত ১৭সেপ্টেম্বর মহেশপুর থানার বাসিন্দা রাজু আহম্মেদকে গ্রেফতার করার জন্য পরিচালিত অভিযানের সময় তার স্ত্রী ও ১১ মাস বয়সের শিশুপুত্র রাসেলকে গ্রেফতার করে থানা হাজতে আটক রাখা হয় ।

ঘটনার ১৯ ঘন্টা পর ৪২ হাজার টাকার বিনিময়ে তাদের থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। বিষয়টি ১৮ তারিখে সংবাদ পত্রে প্রকাশিত হয়। আদালতের আদেশে আরো বলা হয়েছে, আসামী না হওয়া সত্বেও রাজুর স্ত্রী ও ১১ মাসের শিশু পুত্রকে কোন ক্ষমতাবলে থানা হাজতে ১৯ ঘন্টা আটক রাখা হলো তা আদেশ প্রাপ্তির ৪৮ঘন্টার মধ্যে মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহিদুল ইসলাম ও এএসআই অমির হোসেনকে সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাজু নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে গিয়ে পুলিশ তাকে না পেয়ে তার ১১ মাস বয়সী শিশু আলিফ ওরফে রয়েল এবং স্ত্রী লিপি খাতুনকে পুলিশ আটক করে। এরপর তাদেরকে থানায় আটক রেখে ১৯ ঘন্টা পর বৃহস্পতিবার বিকালে ছেড়ে দেওয়া হয়। থানার গ্রীল ঘেরা বারান্দায় ঘুরে বেড়ানো শিশু আলিফ ওরফে রয়েলের ছবি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। অভিযোগ ওঠে টাকার বিনিময়ে শিশু ও তার মাকে পুলিশ ছেড়ে দেয়। পুলিশ অবশ্য টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করে আসছে।

শীর্ষ মিডিয়া