আসামি বাবলু ও সোহাগ।
ছাত্রলীগ নেতা রবি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি বাবলু ও সোহাগ। ছবি: ইত্তেফাক

শিবির-ছাত্রদলের ৩ জনকে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি রবিউল ইসলাম রবি হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

একই সঙ্গে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

এ মামলায় খালাস পেয়েছেন সাতজন।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক অনুপ কুমার এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন রাজশাহী নগরীর মেহেরচণ্ডি এলাকার হাসান হকারের ছেলে সেতু ইসলাম (৩০), বাবু কশাইয়ের ছেলে মো. বাবলা (২৭) ও বাবলু ড্রাইভারের ছেলে মো. সোহাগ (২৬)। তারা ছাত্রশিবির ও ছাত্রদলের নেতাকর্মী বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে ২০১৩ সালের ১৪ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বৈশাখী মেলায় মেহেরচণ্ডি পূর্বপাড়া এলাকার নসু মিয়ার ছেলে রবিউল ইসলামকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় রবিউলের ভাই শফিকুল ইসলাম থানায় মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ১০ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এরপর গত বছরের মার্চে মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হস্তান্তর করা হয়। মামলার ২৩ সাক্ষীর মধ্যে ১৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

এন্তাজুল হক বাবু জানান, রায় ঘোষণার সময় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সেতু ছাড়া সব আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর সাজাপ্রাপ্ত দুই আসামিকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

আসামিপক্ষের আইনজীবী হিসেবে ছিলেন আবু বাক্কার ও রইসুল ইসলাম।